একে করোনা ভাইরাসের জেরে ব্যাপক আর্থিক ক্ষতি, তারউপর গড়াপেটা কাঁটা,দেশের প্লেয়ারদের একে অপরের প্রতি কাদা ছোড়াছুড়ি। সময়টা একেবারে মোটেই ভাল যাচ্ছে না পাকিস্তান ক্রিকেটের।  উমর আকমল গড়াপেটায় অভিযুক্ত হওয়ার পর থেকেই পাকিস্তানে একাধিক প্রাক্তন ক্রিকেটার পিসিবির দুর্নীতি ও তা দমনে পিসিবির ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। সেই তালিকায় নাম রয়েছে সেলিম মালিক, শোয়েব আখতার, রানা নাভেদ উল হাসান, মহম্মদ আসিফ, জুলকারনাইন হায়দর সহ একাধিক ক্রিকেটার। শোয়েব আখতারের বিরুদ্ধে তো আইনি ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে। এবার পাক ক্রিকেটের অস্বস্তি আরও বাড়াল প্রাক্তন পাক ওপেনার আমির সোহেল। কী করে বারবার বিশ্বকাপের আগেই ওয়াসিম আক্রম অধিনায়ক হয়ে যেত তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সোহেল। একইসঙ্গে তার অভিযোগ, আক্রমের অধিনায়কত্বের জন্যই ১৯৯২ সালের পর আর বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি পাকিস্তান।

আরও পড়ুনঃকেন তাকে ঘুসি মারার হুমকি দিয়েছিলেন ম্যাথু হেডেন,জানালেন পার্থিব প্যাটেল

আক্রমের প্রতি আমির সোহেলের ক্ষোভ নতুন নয়। এর আগেও একাধিকবার ওয়াসিম আক্রমকে আক্রমণ করেছেন সোহেল। ১৯৯৬ বিশ্বকাপে ভারতের কাছে হারের পরে প্রাক্তন বাঁহাতি ওপেনার জানিয়েছিলেন, টস করতে যাওয়ার আগে আক্রম এসে তাঁকে বলেছিলেন, ভারত-পাক ম্যাচে নামতে পারবেন না তিনি। বেঙ্গালুরুর সেই কোয়ার্টার ফাইনালের পরে কেটে গিয়েছে অনেক বছর। দুই ক্রিকেটারই অবসর নিয়েছেন। আক্রমের উপরে ক্ষোভ এখনও কমেনি সোহেলের। সম্প্রতি তিনি বলেছেন, ‘‘১৯৯২ সালের বিশ্বকাপ বাদ দিলে, ২০০৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত ওয়াসিম আক্রমের নেতৃত্ব নিয়ে নাটক হত। ১৯৯৬ সালের বিশ্বকাপের কথাই ধরা যাক। ১৯৯৫ সালে রামিজ রাজাকে ক্যাপ্টেন করা হল। তার আগে সেলিম মালিক ক্যাপ্টেন ছিল। বেশ ভালই নেতৃত্ব দিচ্ছিল দলকে। আরও এক বছর যদি ক্যাপ্টেন হিসেবে থাকত সেলিম মালিক, তা হলে ওয়াসিমকে নেতৃত্বে হয়তো দেখাই যেত না।’’ সোহেল আরও বলেন, ‘‘২০০৩ সালের বিশ্বকাপ পর্যন্ত প্রতি বারই একই ছবি। প্রতি বার বিশ্বকাপের আগে ক্যাপ্টেন সরানো হত আর ওয়াসিমকে ক্যাপ্টেন করে পাঠানো হত বিশ্বকাপে।’’সোহেলের মতে ক্যাপ্টেন্সি নিয়ে এই নাটকের জন্যই পাকিস্তান আর বিশ্বকাপ জিততে পারেনি।    

আরও পড়ুনঃফিটনেস কোনও সমস্যা নয়, লকডাউনের পর ক্রিকেটে ফিরতে প্রস্তুত বিরাট কোহলি

আরও পড়ুনঃকরোনার জের, আগামী বছর অনিশ্চিত অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

আমির সোহেলের এহেন আক্রমণের পর মুখ খুলেছিলেন বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম কিংবদন্তী বোলার। তবেপাল্টা আক্রমণের পথে হাঁটেননি ওয়াসিম আক্রম। আমির সোহেলের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে আক্রম বলেছেন, ‘‘আমার সম্পর্কে এ রকম নেতিবাচক মন্তব্য শুনলে আমি হতাশ হয়ে পড়ি। আমি ব্যাতিত। আমি ১৭ বছর আগে ক্রিকেট ছেড়েছি। কিন্তু নিজেদের স্বার্থের জন্য মানুষ এখনও আমার নামে অভিযোগ করে চলেছে।’’ একাধিক বিপদের নাঝে নতুন করে সোহেল-আক্রম দ্বন্দ্ব মাথা চাড়া দিয়ে ওঠায় পিসিবির চিন্তা বাড়ল বলেই মনে করছে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা।