দীর্ঘ সাত বছর ২২ গজে না ফেরার যন্ত্রণা। অভিযোগ, তর্ক, বিতর্ক যাই থাক খব শীঘ্রই ফের ক্রিকেট মাঠে ফিরবেন বলে জানিয়েছিলেন ভারতীয় পেসার এস শ্রীসন্থ। অবশেষে সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে খুব তাড়াতাড়ি ফের বল হাতে ব্যাটসম্যানের দিকে ধেয়ে আসতে দেখা যাবে শ্রীসন্থকে। কারণ সেপ্টম্বরে শেষ হয়ে যাচ্ছে শ্রীসন্থের নির্বাসনের মেয়াদ। কেরল ক্রিকেট সংস্থার তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, সেপ্টেম্বরে প্রাক্তন ভারতীয় পেসারের উপর থেকে নির্বাসন উঠে গেলে তাঁর নাম রঞ্জি ট্রফির জন্য রাজ্য দলে বিবেচনা করা হবে। যদিও এক্ষেত্রে শ্রীসন্তকে নিজের ফিটনেসের প্রমাণ দিতে হবে এবং ফর্মের নিরিখেই ঢুকতে হবে দলে।

আরও পড়ুনঃআইএসএলে কমছে বিদেশির সংখ্যা,আগামী মরসুম থেকে লাগু হচ্ছে একাধিক নয়া নিয়ম

২০১৩ সালে আইপিএল স্পট ফিক্সিং কাণ্ডে নাম জড়িয়ে যায় ২০১১ সালের বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় পেসার এস শ্রীসন্থের। এরপরেই গ্রেফতার হওয়া শ্রীসন্থকে আজীবন নির্বাসনে পাঠায় বিসিসিআই। ২০১৫ সালে স্পট ফিক্সিং মামলা থেকে মুক্তি মিললেও বিসিসিআই নিষেধাজ্ঞা জারি রাখে। বোর্ডের এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে ২০১৮ সালে কেরল হাইকোর্টে মামলা করেন শ্রীসন্থ। সেখানে আদাতলতের নির্দেশে শ্রীসন্থের নির্বাসনের মেদায় কমিয়ে সাত বছর করে দেয় বিসিসিআই। চলতি বছরেই সেপ্টেম্বরে শ্রীসন্থের নির্বাসনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তাই এবার ক্রিকেটে ফেরার ক্ষেত্রে ভারতীয় পেসারের কোনও বাধা থাকছে না।

আরও পড়ুনঃ২০ তারিখ ফিরছে সিঁরি আ,চিনে নিন ইতালিয়ান লিগের ইতিহাসের সেরা ১০ গোলকিপারদের

আরও পড়ুনঃকোপা ইটালিয়ার ফাইনালে নাপোলির কাছে হার জুভেন্টাসের,ফের ব্যর্থ রোনাল্ডো

আগেই রঞ্জি ট্রফি খেলতে চেয়ে কেরল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন বিশ্বকাপজয়ী নির্বাসিত পেসার। কেরল ক্রিকেট সংস্থা ইতিবাচক জবাব দিয়েছে শ্রীসন্থকে। তাঁকে রঞ্জি দলের জন্য বিবেচনা করা হবে, একথা ঘোষণা করার পরেই কেরল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনকে কৃতজ্ঞতা জানান শ্রীসন্ত। ৩৭ বছর বয়সী প্রাক্তন ভারতীয় পেসার বলেন, ‘আমাকে সুযোগ দেওয়ার জন্য চিরকার ঋণী থাকব কেসিএ'র কাছে। আমি নিজের ফিটনেস প্রমাণ করব এবং মাঠে আবার ঝড় তুলব। সময় এসেছে সমস্ত বিতর্ককে পিছনে ফেলে আসার।  একই সঙ্গে ফের জাতীয় দলে খেলার ইচ্ছেপ্রকাশও করেছেন শ্রীসন্থ’। একইসঙ্গে সব কিছুর জবাব দেওয়ার জন্য ২২ গজকেই বেছে নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন কেরলের পেস ব্য়াটারি।