টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতলেও এমএস ধোনিকে ছোঁয়া হল না  বিরাট কোহলির। টি-টোয়েন্টি সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে হারতে হল টিম ইন্ডিয়াকে। অস্ট্রেলিয়ার কাছে ১২ রানে হারতে বিরাট কোহলিক দলকে। এই ম্য়াচ জিতে হোয়াইট ওয়াশ হওয়ার হাত থেকে রক্ষা অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। এর আগে এমএসধোন-র নেতৃত্ব অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টি২০ সিরিজে ব্যাগি গ্রিনদের হোয়াইট ওয়াশ করেছিল ধোনির ভারত। এদিন সেই রেকর্ড স্পর্শ করার সুযোগ থাকলেও, হাতছাড়া হল কোহলির। 

এদিন টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। শুরুতেই অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ  আউট হয়ে গেলেও ম্য়াচের রাশ ধরেন ম্যাথু ওয়েড ও স্টিভ স্মিথ। দ্বিতীয় উইকেটে ৬৫ রানের পার্টনারশিপ করেন দুই তারকা ব্যাটসম্যান। কিন্তু ব্যক্তিগত ২৪ রানের মাথায় আউট হন স্টিভ স্মিথ। এরপর ওয়েড ও ম্যাক্সওয়েল দলের হয়ে দুরন্ত ব্যাটিং করেন। এই দুজন ছাড়া অন্য কোনও ব্যাটসম্যান আর বড় রান করতে পারেনি। ৫৩ বলে ৮০ রানের ইনিংস খেলেন ওয়েড ও ৩৬ বলে ৫৪ রানের ইনিংস কেলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ভারতের হয়ে দুটি উইকেট পান ওয়াশিংটন সুন্দর ও একটি করে উইকেট পান টি নটরাজন ও শার্দুল ঠাকুর। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৮৬ রান করে অস্ট্রেলিয়া।

জবাবে রান তাড়া করতে নেমে ক্রমাগত ব্যবধানে উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় ভারতীয় দল। একমাত্র বিরাট কোহলি ছাড়া বড় স্কোর করতে সমর্থ হননি কোনও ব্যাটসম্যান। কেএল রাহুল ও শ্রেয়স আইয়র ও এদিন খাতা পর্যন্ত খুলতে পারেননি। সঞ্জু স্যামসন করেন ১০ রান। শিখর ধওয়ান ২৮ ও হার্দিক পান্ডিয়া ২০ রান করে লড়াই করার চেষ্টা করলেও, কোহলির সঙ্গে শেষ পর্যন্ত সঙ্গত দিতে পারেননি। ফলে ৮৫ রানের কোহলি অধিনায়কোচিত ইনিংস দলকে জেতাতে পারেনি। ৪ টি চার ও ৩টি ছয়ে সাজানো বিরাটের ইনিংস। ভারতের ইনিংস শেষ হয় ৭ উইকেটে ১৭৪ রানে। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট নেন মিচেল সুইপসন। এই ম্যাচ হারলেও ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতল বিরাট কোহলির দল। এবার লড়াই শুরু হবে টেস্ট সিরিজের। ১৭ ডিসেম্বর প্রথম টেস্ট।