ভারতীয় ক্রিকেট দল বিশ্বের যেকোনও প্রান্তেই ক্রিকেট খেলতে যাক না কেন, তাদের সমর্থকের অভাব হয় না। তা সে  ইংল্যান্ড হোক বা অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা হোক বা ওয়েস্ট ইন্ডিজ,এমনকী পাকিস্তানেও ভারতীয় ক্রিকেট দল অতীতে যতবার খেলতে গিয়েছে দেখা মিলেছে ভারতীয় সমর্থকদের। ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ায় তো মাঝে মধ্যে আয়োজক দেশকেও ছাপিয়ে যায় ভারতীয় দর্শকরা। কিন্তু পৃথিবীর এমন একটি দেশ আছে যেখানে খেলতে গেলে ভারতীয় সমর্থক একে বারেই থাকে না বললেই চলে। যেটুকুও থাকে তারা ভারতা থেকে খেলা দেখতে যায়। জানেন কোন সেই দেশ। সেই দেশের নাম জানালেন স্বয়ং ভারতীয় ক্রিকেট দলের সহ অধিনায়ক রোহিত শর্মা। আর সেই দেশ খুব দুরেও নয়, একেবারে আমাদের প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশ। সম্প্রতি বাংলাদেশের ওপেনিং ব্যাটসম্যান তামিম ইকবালের একটি লাইভ চ্যাটে আড্ডায় বসেছিলেন রোহিত শর্মা। সেখানেই এমন দাবি করেছেন হিটম্যান।

আরও পড়ুনঃহরভজনকে মারতে কেনও হোটেল পর্যন্ত গিয়েছিলেন শোয়েব, জানালেন নিজেই

লাইভ চ্যাটে ভারত ও বাংলাদেশের সমর্থকদের প্রসঙ্গে কথা উঠলে রোহিত শর্মা জানান,'ভারত এবং বাংলাদেশের ক্রিকেট অনুরাগীরা থাকে, আমরা যখন ভুল করি তখন আমাদের কাছ থেকে সমালোচনা করা হয়, আমি জানি এটি বাংলাদেশের ক্ষেত্রেও একইরকম, আমি জানি ম্যাচ খেলতে মাঠে নামার সময়, ভক্তরা বাংলাদেশকে কীভাবে সমর্থন করবে, এটি অবিশ্বাস্য, কোনও রকম ভিড় সমর্থন ছাড়া ভারত খেলতে অভ্যস্ত নয়, বাংলাদেশই একমাত্র জায়গা যেখানে আমরা কোনও সমর্থন পাই না।' সাম্প্রতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নতি নিয়েও প্রশংসা করেন ভারতীয় দলের সহ অধিনায়ক।

আরও পড়ুনঃঅস্ট্রেলিয়া সফরে ৫ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের সম্ভাবনা নাকোচ করে দিলেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট

আরও পড়ুনঃজুলাইতেই মাঠে ফিরতে পারে ভারতীয় ক্রিকেট দল,ইঙ্গিত বোর্ড কর্তার

আইসিসি অনুমোদিত টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে দুরন্ত রেকর্ড রোহিতের। সেই কথাও তুলে ধরেন তামিম ইকবাল। হিটম্যান আইসিসি ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ ২০১৫, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ২০১৭ এবং আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯-এ বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করেছিলেন। ভারত এবং বাংলাদেশের মধ্যে গত কয়েক বছরে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা তৈরি হয়েছে এবং ভক্তদের সামনে অনেক উত্তেজনাপূর্ণ মুহুর্তও তৈরি হয়েছে। সেই আলোচনা আসে দুজেনর কথাবার্তায়। শুধু তাই নয় ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশের অনুর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপ নিয়েও কথা হয় দুজনের মধ্যে। তবে সবকিছুকে ছাপিয়ে গিয়েছে, বাংলাদেশে ভারতীয় দলের কোনও সমর্থন না পাওয়ার প্রসঙ্গ। চ্যাট শেষে আগামী দিনের জন্য একে অপরকে শুভেচ্ছাও জানান দুই তারকা।