প্রথম টেস্টে অ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিয়ায় কাছে শুধু হার নয়, লজ্জার নজির গড়েছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। যে দলটা টি২০ সিরিজ জেতার পর আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে ছিল সেই দলটাই  একটি খারাপ ইনিংসের কারণে দুমড়ে মুসরে পড়েছে। ২৬ তারিখ বক্সি ডে টেস্ট।সেই টেস্টের নামার আগে ভারতীয় দলকে মানিকভাবে চাঙ্গা করাই এই মুহূর্তে প্রধান করণীয় বিষয় হয়ে উঠেছে টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে। আর দ্বিতীয় টেস্টের আগে এবার দলের সঙ্গে মিটিংয়ে বসে দলকে উজ্জীবিত করার সিদ্ধান্ত নিলেন বিরাট কোহলি।

অ্যাডিলেডে পিঙ্ক বল টেস্টে লজ্জার হারের সম্মুখীন হতে হয়েছে ভারতীয় দলকে। প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৩৬ রানে শেষ ভারতীয় দলকে। ১৯৭৪ সালে ইংরেজদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দল দ্বিতীয় ইনিংসে সব থেকে কম রান করেছিল। সেই রান ছিল ৪২। সেই রেকর্ডও ভেঙে দিয়েছে কোহলির ভারত। তারউপর সামির চোটের কারণে সিরিজ থেকে ছিটকে গিয়েছে। বিরাট কোহলিও ফিরছেন পিতৃত্বকালীন ছুটিতে। তবে ফেরার আগে গোটা দলের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন বিরাট কোহলি। দিনরাতের টেস্টে বিধ্বস্ত হওয়ার পর সতীর্থদের মানসিক ভাবে উদ্দীপ্ত করাই এই বৈঠকের লক্ষ্য বলে জানা গিয়েছে। একইসঙ্গে তরুণদের সাহস জোগানোর চেষ্টাও করবেন তিনি।

আগামি তিন টেস্টে দলকে নেতৃত্ব দেবেন অজিঙ্কে রাহানে। প্রথম টেস্টের আগে রাহানে প্রসঙ্গে আত্মবিশ্বাসের সুর শোনা গিয়েছিল বিরাট কোহলির গলায়। ভালো অধিনায়কত্বের পাশাপাশি 'জিঙ্কস'(রাহানের ডাকক নাম) ভালো ব্যাটিং করবে বলেও আশাবাদী ছিলেন বিরাট। কিন্তু প্রথম টেস্টের পর বদলে গিয়েছে গোটা ছবিটা। তাই রাহানের সঙ্গেও আলাদা করে কথা বলবেন কোহলি। পাশাপশি দলে একাধিক পরিবর্তম হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। কোহলি, পৃথ্বি শ, ঋদ্ধিমান সাহা, মহম্মদ  শামির বদলে দলে সুযোগ পেতে পারেন কেএল রাহুল, শুভমান গিল, ঋষভ পন্থ ও মহম্মদ শিরাজ। তাদের সঙ্গেও কথা বলবেন কোহলি। সব মিলিয়ে দেশা ফেরার আগে দলকে মোটিভেট করার কাটজাই করতে চাইছেন বিরাট কোহলি।