সচিন টেন্ডুলকারকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন তারই একসময়ের প্রতিপক্ষ ব্রায়ান লারা। প্রাক্তন ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান অধিনায়ক এবং কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান ব্রায়ান লারা সম্প্রতি একটি ইন্টারভিউতে সচিনের টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ারই সিডনির মাটিতে করা অপরাজিত ২৪১ রানের ইনিংসটির প্রশংসা করেছেন। তিনি আরও বলেছেন যে সচিন জীবনে যতগুলি ইনিংস খেলেছেন তার মধ্যে এসসিজি তে করা ওই দ্বিশতরানের ইনিংসটিই সচিনের কেরিয়ারের সবচেয়ে ধৈর্য্যশীল এবং দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ইনিংস। 

আরও পড়ুনঃঘরবন্দি অবস্থায় বান্ধবী জর্জিনাকে দিয়ে চুল কাটালেন রোনাল্ডো, ভাইরাল ভিডিও

সচিন টেন্ডুলকার যখন পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জীবনের প্রথম টেস্ট ম্যাচটি খেলতে নামেন তখন তার বয়স ছিল মাত্র ১৬। এরপর ২৪ বছর ধরে অনেক উত্থান পতন, চোট আঘাত সামলেও তিনি ক্রিকেট খেলে গেছেন। সচিনের এই কেরিয়ারকে অবিশ্বাস্য বলে মন্তব্য করেছেন লারা। তার মতে এখনকার যুগে যেখানে ক্রীড়াক্ষেত্রে খেলোয়াড়রা শরীর স্বাস্থ্যর দিকে আলাদা করে নজর দেন, সেখানে সচিন খেলা শুরু করার সময় এরকম পরিস্থিতি বা পরিকাঠামো ছিল না। তা সত্ত্বেও এত বছর ধরে সর্বোচ্চ পর্যায়ের ক্রিকেট খেলা আজকের যুগে দাঁড়িয়েও অসম্ভব মনে হয়। তার গোটা টেস্ট কেরিয়ারে ২০০ টি ম্যাচ খেলে সচিন রান করেছেন ১৫,৯২১। 

আরও পড়ুনঃ৫ এপ্রিল রাত ৯ টায় ৯ মিনিট প্রদীপ জ্বালান, প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগকে সমর্থন ভারতীয় দলের ক্রিকেটারদের

আরও পড়ুনঃলকডাউনের সময় প্রতিদিন ১০ হাজার মানুষের খাওয়ার দায়িত্ব নিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

লারা আরও বলেছেন যে সচিন জীবনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছে, কিন্তু ধৈর্য্যের কথা বলতে গেলে তার ওই ২৪১ রানের ইনিংসটিই তার কেরিয়ারের সেরা। ৪৩৬ টি বল খেলে ওই রান করেছিলেন মাস্টার ব্লাস্টার। তার দ্বিশতরানের দৌলতে ভারত সেই ইনিংসে ৭০৫ রান তুলতে পেরেছিল। লারা মজা করে বলেন যে সচিন ইনিংস খেলার সময় যে ধৈর্য দেখিয়েছিল সেইরকম ধৈর্য দেখিয়ে এখন সকলের বাড়িতে থাকা উচিত। করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে এই ইনিংসটিকে অনুপ্রেরণা হিসাবে নেওয়া যেতে পারে বলে জানিয়েছেন লারা।