ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ শুরুর আগেই ফের মাথা চারা দিল করোনা আতঙ্ক। কারণ অ্যাডিলেডে ফের বাড়ছে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা। যা নিয়ে উদ্বিগ্ন স্থানীয় প্রশাসন। ২৭ নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে ভারত-বনাম অস্ট্রেলিয়ার একদিনের সিরিজ। তারপর ৪ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে টি২০  সিরিজ। অবশেষে ১৭ ডিসেম্বর থেকে অ্যাডিলেডে দিন-রাতের গোলাপী বলের টেস্ট দিয়ে শুরু হবে ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়ার ৪ ম্যাচের মেগা টেস্ট সিরিজ। কিন্তু তার আগে অ্যাডিলেডে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ।

অ্যাডিলেডে ভারত-অস্ট্রেলিয়ার পিঙ্ক বল টেস্ট ঘিরে এখন থেকেই চড়তে শুরু করেছে উত্তেজনার পারদ। অ্যাডিলেড টেস্টই হতে চলেছে দুই দলের প্রথম দিন-রাতের টেস্ট ম্যাচ। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে অজি প্লেয়ারদের মাইন্ড গেমও। কিন্তু  অ্যাডিলেডে করোনা সংক্রমণ বাড়ায় তড়িঘড়িআসরে নেমেছে প্রশাসন। ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া, তাসমানিয়া-সহ একাধিক রাজ্যের সীমানা বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে অ্যাডিলেড থেকে আসা প্রত্যেককেই ১৪ দিনের জন্য কোয়রান্টিনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি হাতের বাইরে যাওয়ার আগেই নিয়ন্ত্রণে আনতে তৎপর প্রশাসন।

অ্যাডিলেডে করোনা সংক্রমণ বাড়ায় আইসলেশনে থাকতে বলা হয়েছে অস্ট্রেলিয়া দলের বেশ কয়েকজন তারকা ক্রিকেটার। সেই তালিকায় রয়েছে অস্ট্রেলিয়া টেস্ট দলের অধিনায়ক টিম পেন, ম্যাথু ওয়েড সহ বেশ কয়েক জন ক্রিকেটারকে। কারণ শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচ খেলে এসেছিলেন এই ক্রিকেটাররা।  তবে ভারত-অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড টেস্ট নিয়ে এখনও কোনও আশঙ্কা নেই বলে জানানো হয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে। ম্যাচে কোনও সমস্যা হবে না বলেও আশ্বস্ত করা হয়েছে।