বর্তমানে কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক। কলকাতা বাদেও আইপিএলে খেলেছেন অনেক দলের হয়ে। কিন্তু আদতে তিনি ক্রিকেটার তামিলনাড়ুর। ফলে চেন্নাইয়ের হয়ে খেলাটা আইপিএলের প্রথম বছর থেকে স্বপ্ন ডিকের। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তা হয়ে ওঠনি।  ২০০৮ সালে আইপিএল শুরুর বছরে মনে করা হয়েছিল যে নিজের নিজের রাজ্যের হয়ে খেলবেন তারকারা। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় খেলেছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সে ছিলেন সচিন তেন্ডুলকর। দিল্লি ডেয়ারডেভিলসে ছিলেন বীরেন্দ্র সহবাগ। কিন্তু, সব ক্রিকেটারের ক্ষেত্রে তা ঘটেনি। সিএসকে যেমন ‘ঘরের ছেলে’ কার্তিক নয়, নিলামে নিয়েছিল ধোনিকে। এটাই যন্ত্রণা দিয়েছিল কার্তিককে।

আরও পড়ুনঃলকডাউনে ব্যাট ছেড়ে ম্যাজিশিয়ান হ্য়ারি, ভাইরাল ভিডিও

এক ক্রিকেট ওয়েবসাইটে দীনেশ কার্তিক বলেছেন, “২০০৮ সালে যখন নিলাম হয়েছিল আমি তখন ছিলাম অস্ট্রেলিয়ায়। তখন তামিলনাডু থেকে দেশের হয়ে খেলা সবচেয়ে বড় তারকা ছিলাম আমি। নিশ্চিত ছিলাম যে চেন্নাই সুপার কিংস আমাকেই নেবে। ভাবছিলাম যে আমাকে অধিনায়ক করা হবে তো! এই চিন্তাই ঘুরছিল মাথায়। কিন্তু নিলামে ওরা প্রথমেই ১৫ লক্ষ ডলারে নিল ধোনিকে। আর ধোনি তখন বসে ছিল একদম আমার পাশে। কিন্তু ও এক বারও বলেনি যে সিএসকে ওকে দলে নিতে পারে। হয়তো ধোনি জানতাও না। সেটাই ছিল আমার হৃদয়ে সবচেয়ে বড় ছুরির আঘাত, ভেবেছিলাম এখন না নিলেও পরে হয়তো নেবে। ১৩ বছর ধরে অপেক্ষা করে আছি। আজও আমার ডাক এল না।”

আরও পড়ুনঃতার আমলে ভারতীয় ক্রিকেটাররা দেশের নয় নিজের জন্য খেলত, বিস্ফোরক মন্তব্য ইনজামামের

আরও পড়ুয়াঃনিজের ৪৭তম জন্মদিন পালন করবেন না মাস্টার ব্লাস্টার

আইপিএলের অন্যতম সফল তারকা কার্তিক। ইতিমধ্যেই দিল্লি ডেয়ারডেভিলস, মুম্বই ইন্ডিয়ান্স, কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব, গুজরাট লায়ন্স ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের জার্সিতে খেলেছেন তিনি। কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়কত্বও করেছেন গত মরশুমে। কিন্তু ১৩ বছর ধরে চেন্নাইয়ের ডাকের অপেক্ষায় রয়েছেন দীনেশ কার্তিক।