এবার করোনা ভাইরাসের থাবা বাংলা ক্রিকেটে। এতদিন পর্যন্ত বাংলা ক্রিকেট জগতে কোনও করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের খবর ছিল না। কিন্তু এবার মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন বাংলার প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা বাংলা বর্তমান দলের অন্যতম নির্বাচক সাগরময় সেন শর্মা। ১৯৮৯-’৯০ মরসুমে সম্বরণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে রঞ্জি ট্রফিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলা। সেই দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন এই প্রাক্তন বাঁহাতি পেসার। সাগরময় সেন শর্মার করোনা আক্রান্তের খবর ছড়িয়ে পড়তেই চাঞ্চল্য বেড়েছে বাংলার ক্রিকেট মহলে। উদ্বেগে রয়েছে সিএবির কর্তারাও।

আরও পড়ুনঃপরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য প্রতিদিন খাওয়ারের ব্যবস্থা করছেন সেওয়াগ

শুক্রবারই জানা যায় করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছেন সাগরগময় সেন শর্মা। প্রাথমিকভাবে ধারনা তার স্ত্রীর থেকেই আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। কারণ কয়েক দিন আগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন প্রাক্তন ক্রিকেটারের স্ত্রী। ভর্তি ছিলেন হাসপাতালে। কিন্তু চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন তার স্ত্রী। যদিও সাগরময়ের দেহে করোনার কোনও উপসর্গ ছিল না। তবে টেস্ট করানোর পর রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এই মুহূর্তে তাঁকে ইএম বাইপাস সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে রাজারহাটের কোয়রান্টিন সেন্টারে ছিলেন তিনি। চিকিৎসকেরা পর্যবেক্ষণে রেখেছেন তাকে।

আরও পড়ুনঃঅ্যাকাউন্ট হ্যাক করে লাইক করা হল পর্ণ ভিডিও,অপমানে সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়লেন ওয়াকার ইউনিস

আরও পড়ুনঃঝুলে রইল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভাগ্য,১০ জুনের পর সিদ্ধান্ত নেবে আইসিসি

সিএবির তরফে খবরের সত্যতা স্বীকার করে বলা হয়েছে, সাগরময়বাবু করোনায় আক্রান্ত জানার পর বৃহস্পতিবারই তাঁর সমস্ত বকেয়া মিটিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে এমন খবরে স্বাভাবিকভাবেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে।  প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৪৭ ম্যাচে ১৪৯ উইকেট নিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি লিস্ট-এ ফরম্যাটে ১৯ ম্যাচ খেলে ১৬ উইকেট নিয়েছেন। ১৯৮৭ থেকে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত বাংলা ও পূর্বাঞ্চল দলের নিয়মিত সদস্য ছিলেন তিনি। এ ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়েই সতর্ক হচ্ছে সিএবি। ক্রিকেটার, কোচ এবং সাপোর্ট স্টাফ সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে তাই একাধিক গাইডলাইন আনতে চলেছে বাংলার ক্রিকেট সংস্থা।