দীর্ঘদিন ধরে চাপানউতোর চলার পর অবশেষে অশোক দিন্দাকে ভিনরাজ্যের হয়ে ক্রিকেট খেলার ছাড়পত্র দিল সিএবি। বুধবার ক্রিকেট এসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের তরফ থেকে তার হাতে ধরিয়ে দেওয়া হল নো অবজেকশন সার্টিফিকেট। তবে দিন্দা যদি চান তাহলে আবার ফিরতে পারেন বাংলায়, সেই কথাও সিএবি-র তরফ থেকে বলে রাখা হল সেই বার্তায়।

গত মরসুমে রঞ্জি ট্রফি শুরু হওয়ার আগে একবার কোচ অরুণ লালকে রণদেব বসু কানে কানে কিছু বলেন, সেই ঘটনার প্রতিবাদ করেন দিন্দা।  টিমমিটিংয়েই বাংলার বোলিং কোচ রণদেব বসুর সঙ্গে তীব্র বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েছিলেন নৈছনপুর এক্সপ্রেস। সেই ঘটনার পর শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে তাঁকে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়। কোচ অরুণ লাল জানিয়েছিলেন, দলীয় সংহতি আর শৃঙ্খলাই সবার আগে। ক্ষমা চাইলেই দিন্দাকে দলে ফেরানো হবে বলেও জানিয়ে দেন অরুণলাল। দুই পক্ষের মধ্যে মধ্যস্থতায় এগিয়ে এসেছিল সিএবি-ও। দলের সেরা পেসারকে বোর্ডের তরফ থেকে যথেষ্ট বোঝানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। সিনিয়র ফাস্ট বোলারের সঙ্গে এই নিয়ে কথা বলেছিলেন সিএবি-র নতুন প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া। যদিও তাতে চিঁড়ে ভেজেনি। দিন্দা সাফ জানিয়ে দেন, তিনি কোনও ভুল করেননি, তাই ক্ষমা চাওয়ারও কোনও প্রশ্ন নেই। বাংলা ছেড়ে অন্য রাজ্যের হয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলার পরিকল্পনার আগেও অনেকবার ভেবেছিলেন দিন্দা নানা ইস্যু-তে। সিএবি-র কাছে এনওসি চেয়ে আবেদনও করেন একসময় জাতীয় দলে খেলা পেসার। 

বুধবার দিন্দার দাবিমত এনওসি দিয়ে দিয়েছে সিএবি। প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়ার সই করা চিঠিতে লেখা হয়েছে যে এখনও দিন্দার মধ্যে অনেক ক্রিকেট অবশিষ্ট আর যে দলের হয়ে তিনি খেলতে চাইছেন, তারা নিশ্চিত যে বঙ্গ পেসার তাঁদের হয়ে ভালই খেলবেন। পাশাপাশি লেখা হয়েছে যে বাংলার ক্রিকেটের দরজা তার জন্য সবসময় খোলা। তিনি চাইলেই ফিরতে পারবেন। শোনা যাচ্ছে যে এবার সম্ভবত গোয়া বা মণিপুরের হয়ে খেলে মাঠে ফিরবেন আগ্রাসী পেসার।