গ্যালারিতে বসে আছেন পূর্বাঞ্চলের নির্বাচকরা। রাঁচির এক লম্বা চুলের ব্যাটসম্যান একের পর এক ছক্কা হাঁকিয়ে যাচ্ছেন তাদের দিকেই। কয়েকবার তো ধেয়ে আসা বলের থেকে বাঁচতেও হয় তাদের। ধোনির জীবনীর উপর নির্মিত ছবির এই দৃশ্য আমাদের সকলেরই জানা। কিন্তু কীভাবে দলে সুযোগ পেয়েছিলেন সেই রহস্যটা আজ পর্যন্ত অজানাই থেকে গিয়েছে সকলের কাছে। সেই অজানা তথ্যই সকলের সামনে তুলে ধরলেন প্রাক্তন জাতীয় নির্বাচন  সৈয়দ কিরমানি। সেই গল্পও যথেষ্ট চমকপ্রদ। 

আরও পড়ুনঃঐতিহাসিক টেস্ট সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ড পৌছল ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল

কী সেই গল্প? কিরমানি তখন জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক। রঞ্জি ট্রফির একটি ম্যাচ দেখতে গিয়েছিলেন তিনি। তাঁর সঙ্গে ছিলেন সেই সময়ে পূর্বাঞ্চলের নির্বাচক প্রণব রায়। সেই ম্যাচে ধোনি খেললেও উইকেটকিপিংই করেননি। কিরমানি বলেন, ‘আমি আগে কখনও এটা উল্লেখ করিনি। তবে এখন জানাচ্ছি, কীভাবে ধোনিকে নির্বাচিত করা হয়েছিল। আমি এবং আমার পূর্বাঞ্চলের সতীর্থ নির্বাচক প্রণব রায় একটা রঞ্জি ট্রফির ম্যাচ দেখছিলাম। আমি মনে করতে পারছি না ঠিক কোন ম্যাচ ছিল সেটা, হয়ত প্রণব বলতে পারবে। প্রণবই আমাকে বলে, এই সেই ঝাড়খণ্ডের সম্ভাবনাময় উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান, যে নির্বাচিত হওয়ার যোগ্য দাবিদার।’ প্রাক্তন নির্বাচক প্রধান আরও বলেন, ‘আমি প্রণবকে জিজ্ঞাসা করি, ও কি উইকেটকিপিং করছে? ও বলে না, ও ফাইন-লেগে ফিল্ডিং করছে। তখন ধোনির গত দু ’ বছরের পরিসংখ্যান দেখতে চাই । তা দেখে তো আমি অবাক হয়ে যাই। ব্যাটিংয়ে দারুণ ধারাবাহিকতার পরিচয় দিয়েছে ধোনি। আর সেই পরিসংখ্যান দেখার পরে ওর কিপিং না দেখেই পূর্বাঞ্চল দলে নেওয়ার সম্মতি দিয়ে দিই। বাকিটা তো ভারতীয় তথা বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা রয়েছে।

আরও পড়ুনঃবিরাটদের বিরুদ্ধে স্লেজিং করতে চাই না,হঠাৎ কেন এই সিদ্ধান্ত অজি তারকার

আরও পড়ুনঃ১১ জুন ফিরছে লা-লিগা,চিনে নিন লিগের ইতিহাসে ১১ জন সর্বোচ্চ গোলদাতাকে

বর্তমানে ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের পর থেকে কিছুটা নিভৃতবাসেই রয়েছেন এম এস ধোনি। চলতি বছরের অআইপিএলে ২২ গজে ফেরার কথা থাকলেও, করোনা ভাইরাস অতিমারীর কারণে তাও সম্ভব হয়নি। তারপর থেকেই ধোনির অবসর নিয়ে ওঠে নানা জল্পনা। সম্প্রতি ধোনির অবসর বিতর্ক নিয়ে মুখ খুলেছেন তার স্ত্রী ধোনিও। এত কিছুর মধ্যেও কিন্তু কোনও মন্তব্যই করেননি এমএসডি। ধোনির কেরিয়ারের এরম একটা উদ্বেগজনক সময়ে প্রাক্তন জাতীয় নির্বাচক সৈয়দ কিরমানির ধোনির ক্রিকেট জীবনের শুরুর দিকে স্মৃতিচারণা বা রহস্যফাঁস যাই হোক না কেন, তা মনে ধরেছে কোটি কোটি ধোনি অনুরাগীদের।