একজনের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে ১০ বছরের বেশি অভিজ্ঞতা। অপরদিকে, আরেক জনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বয়স মাত্র তিন কি চার। একজন লাগাতর রান করার পাশাপাশি সাফল্যের সঙ্গে সামলাচ্ছেন দেশের অধিনায়কত্ব। আরেক জন নজর কেড়েছে ব্যাটসম্যান হিসেবে সবে মাত্র পেয়েছেন দেশের একদিনের দলের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব। কথা হচ্ছে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম। কিন্তু ইতিমধ্যেই তুলনা শুরু হয়ে গিয়েছে দুই তারকার। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই বাবরকে এগিয়ে রাোখছেন প্রাক্তন পাক তারকারা। তা নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্কও।

আরও পড়ুনঃফুটবল বিশ্বে ভূমিকম্প, বার্সোলোনা ছাড়ছেন কী লিওনেল মেসি

এবার  সেই পথেই হাঁটলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক তথা প্রাক্তন নির্বাচক প্রধান ইনজামাম উল হক। তুলনামূলক আলোচনায় বিরাট কোহলির থেকে এগিয়ে রাখলেন বাবার আজমকে। এক্ষেত্রে শুরুর দিকে দুই তারকার পরিসংখ্যানে নজর দিতে বললেন ইনজি। ইনজামাম মনে করেন, বাবর আজম অল্প দিনেই অনেক কিছু অর্জন করেছেন। প্রাক্তন তারকার কথায়, ‘মাত্র কয়েক বছরেই  বাবর আজম অনেক কিছু অর্জন করেছে। আমি একটা বিষয়ে নিশ্চিত যে, ভবিষ্যতে আরও ভালো পারফর্ম্যান্স করে দেখানোর ক্ষমতা রয়েছে বাবরের।’কোহলির সঙ্গে পাক দলনায়কের তুলনা প্রসঙ্গে ইনজি বলেন, ‘কোহলি ইতিমধ্যেই ১০ বছর খেলে ফেলেছে। সেদিক থেকে বাবর সবে মাত্র ৩-৪ বছর খেলছে। তবে যদি শুরুর দিকের পারফর্ম্যান্সের তুলনা কর, তবে দেখবে বাবর এগিয়ে রয়েছে।’

আরও পড়ুনঃসহ খেলোয়ারের বান্ধবীকে ধর্ষণ অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারের,সাজা শোনাল আদালত

আরও পড়ুনঃঅবশেষে স্বস্তি,স্বপরিবারে করোনা মুক্ত হলেন শাহিদ আফ্রিদি

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিরাট কোহলি ৮৬ টি টেস্ট, ২৪৮টি ওডিআই, ৮২টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন। টেস্টে বিরাটের সংগ্রহ ৭২৪০, ওডিআইতে ১১৮৬৭, টি-২০-তে ২৭৯৪। গড় যথাক্রমে ৫৩, ৫৯ ও ৫০। আন্তর্দাতিক ক্রিকেটে বিরাটে সেঞ্চুরির সংখ্যা ৭০। সেখানে এখনও পর্যন্ত বাবর আজম খেলেছেন ২৬ টেস্ট, ৭৪ ওয়ানডে, ৩৮ টি-টোয়েন্টি। এই তিন ফরম্যাটে তাঁর গড় যথাক্রমে ৪৫.১২, ৫৪.১৭ ও ৫০.৭২। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখনও পর্যন্ত তিনি করেছেন ১৬ সেঞ্চুরি। ফলে ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরাও বলছেন এখনও বিরাটের সঙ্গে বাবরের তুলনার সময়ই আসেনি।