প্রাক্তন রঞ্জি ট্রফি প্লেয়ারের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে চাঞ্চল্য ছড়াল ভারতীয় ক্রিকেটে। ঘর থেকে পচা গলা অবস্থায় উদ্ধার করা হয় কেরলের প্রাক্তন ইউকেট রক্ষক, ব্যাটসম্যান জয়মোহন থাম্পির দেহ। কেরলের তিরুবনন্তপুরমে বাড়ি প্রয়াত ক্রিকেটারের। ঘটনায় ইতিমধ্যেই খুনের সন্দেহে জয়মোহন থাম্পির ছেলে অশ্বিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। ১৯৭৯ থেকে ১৯৮২ পর্যন্ত কেরলের হয়ে ৬টি ফার্স্ট ক্লাস ম্যাচ খেলেছেন থাম্পি। খেলা ছাড়ার পর স্টেট ব্যাঙ্কের বিভিন্ন পদে চাকুরি করেছেন তিনি।  তার মৃত্যুর খবরে শোকস্তব্ধ কেরলের ক্রিকেট সংস্থাও।

আরও পড়ুনঃআহত পাখিকেে বাঁচালেন ধোনি কন্যা জিভা,ভাইরাল ছবি

তিরুবনন্তপুরমে নিজের বাড়ি থেকেই পচন ধরা অবস্থায় উদ্ধার করা হয় জয়মোহন থাম্পির দেহ। বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ বেড়োনোয় স্থানীয়রা পুলিসে খবর দেয়। পরে পুলিস গিয়ে উদ্ধার করে দেহ। পুলিসের অনুমান অন্ত ২-৩ দিন আগেই মৃত্যু হয়েছে জয়মোহনের। দেহে পচন ধরে যাওয়ায় দুর্গন্ধ ছড়ায়। যদিও তাঁর ছেলের দাবি, বাবার মৃত্যুর বিষয়ে কিছু টেরই পাননি তিনি। জয়ামোহনের ছেলেকে বাড়িতেই মদ্যপ অবস্থায় পাওয়া যায়। দুর্গন্ধ ছড়ালেও কিছু বুঝতে না পারার দাবি অসঙ্গত মনে করে তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিস। ময়নাতদন্তে জানা যায়, মাথায় জোরালো আঘাতেই মৃত্যু হয়েছে জয়ামোহনের। পুলিসের সন্দেহ থাম্পির মৃত্যুর পিছনে হাত রয়েছে তাঁর ছেলের।

আরও পড়ুনঃটেস্টে ৫০ ওভার পর দেওয়া হোক নতুন বল,লি-র সঙ্গে আলোচনায় বললেন সচিন

আরও পড়ুনঃগতির দুনিয়ায় ঝড় তোলা ছেড়ে নামী পর্ণ স্টার,জানুন রেনে গার্সির কাহিনি

ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। বাড়ির ফরেন্সিক টেস্ট করানো হতে পারে বলেও পুলিস সূত্রে খবর। বাবা ও ছেলের সম্পর্কও খুব একটা ভাল ছিল না বলে জানা গিয়েছে স্থানীয় সূত্রে। কিন্তু কী এমন ঘটল যে ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করে বাবাকে খুন করল ছেলে। ঘটনায় স্তম্ভিত স্থানীয়রা। থাম্পির ছেলেক জিজ্ঞাসাবাদে মিলেছে আরও বেশ কিছু অসঙ্গতি। চলছে পুলিসি তদন্ত। জয়মোহন থাম্পির অস্বাভাবিক মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ ক্রিকেট মহল।