মহেন্দ্র সিং ধোনির কন্যা জিভা মঙ্গলবার ইনস্টাগ্রামে জানান কিভাবে তাদের বাড়িতে এসে পড়া অসুস্থ একটি পাখিকে সেবা শুশ্রূষা করে সুস্থ করে তোলে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছোট্ট জিভার ঘটনাটির বর্ণনা করার ধরণ অনেকের মন করছে। জিভা জানান প্রথম তারা যখন পাখিটিকে দেখতে পান তখন সেটি অজ্ঞান অবস্থায় মাটিতে পড়ে ছিল। সেই অবস্থা থেকে ধোনি এবং সাক্ষী মিলে তাকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনেন এবং পাখিটি ওড়ার ক্ষমতা ফিরে পায়। 

 

 

আরও পড়ুনঃটেস্টে ৫০ ওভার পর দেওয়া হোক নতুন বল,লি-র সঙ্গে আলোচনায় বললেন সচিন

পাখিটি একটি কপারস্মিথ ছিল। জিভা জানান যে মহেন্দ্র সিং ধোনি অজ্ঞান হয়ে থাকা পাখিটিকে জল খাওয়ান।। তারপর পাখিটি ধীরে ধীরে জ্ঞান ফিরে পায়। তারপর ধীরে ধীরে উড়ার অবস্থায় ফিরে আসে পাখিটি। জিভা তারপর পাখিটিকে রেখে দিতে চাইলেও শেষ পর্যন্ত পাখিটিকে ছেড়ে দেন। খানিকক্ষণ পাখিটিকে একটি বাক্সের মধ্যে রেখে দিয়েছিলেন তারা। তারপর সাক্ষী জিভাকে বুঝিয়ে পাখিটিকে মুক্তি দেন। 

 

 

আরও পড়ুনঃকরোনা আবহে ক্রিকেটে একাধিক নয়া নিয়ম জারি করল আইসিসি,জেনে নিন আপনিও

আরও পড়ুনঃকীভাবে দলে সুযোগ পেয়েছিলেন ধোনি, রহস্যফাঁস করলেন প্রাক্তন জাতীয় নির্বাচক

লকডাউনে এসব করেই নিজের পরিবারের সাথে সময় কাটাচ্ছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ক্রিকেট থেকে দূরে আছেন বহুদিন হয়ে গেল। প্রায় এক বছর কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেননি। আইপিএলে ফেরার কথা ছিল মাঠে। কিন্তু আইপিএল না হওয়ায় আপাতত রয়েছেন নিজের রাঁচির বাড়িতেই। সেখানে পুরোপুরি পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন তিনি। যদিও আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তার প্রত্যাবর্তন ক্রমশ অসম্ভব হয়ে পড়ছে। এই মুহুর্তে এই বড় ধোনি ভক্তও তার অস্ট্রেলিয়াগামী ভারতীয় দলের বিমানে থাকার কথা জোর দিয়ে বলতে পারবে না।