Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Hardik Pandeya- 'নিজেই গিয়ে কিনেছিলাম' ৫ কোটির ঘড়ি কান্ডে অপপ্রচারের দাবি তুলেছেন হার্দিক পান্ডিয়া

৫ কোটি টাকার ঘড়ি কান্ডে কাস্টমসের ফাঁদে ভারতীয় ক্রিকেট তারকা হার্দিক পান্ডিয়া। রবিবার (১৪ নভেম্বর) গভীর রাতে ভারতে পৌঁছানোর পর শুল্ক বিভাগ তার ৫ কোটি মূল্যের দুটি ঘড়ি বাজেয়াপ্ত করেছেন। যদিও হার্দিক দাবি তুলেছেন ঘড়ির দাম আদতে ৫ কোটি নয়। বিষয়টি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মিথ্যা রটনা চলছে। 
 

Hardik Pandeya clarifed that watch was purchased by him
Author
Kolkata, First Published Nov 16, 2021, 11:54 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

চলতি মরশুমে টি-২০ বিশ্বকাপে (T-20 Worldcup) ভারতের সময়টা একেবারেই ভালো ছিল না। ইনিংসের শুরুতেই প্রথম দুটি ম্যাচে মেলে চূড়ান্ত ব্যর্থতা। যদিও শেষের ম্যাচগুলিতে জিতে পয়েন্ট টেবিলের (Point Table) তৃতীয় নম্বরে জায়গা করে নিয়েছিল ভারতীয় দল।  তবে তৃতীয় নম্বরে থাকায় সেমি ফাইনালে (Semi Final) জায়গা হয় নি ভারতের। বিশ্বকাপের শুরুতেই মুখোমুখি হয়েছিল ভারত- পাকিস্তান (India- Pakistan)।  এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই দুর্দান্ত চাপের মুখে পরে যায় ভারত।  পরপর উইকেট হারিয়ে অবশেষে ভারতীয় দলের অল রাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়ার (Hardik Pandeya) উপর ভরসা করেছিল অনেকেই।  তবে সেদিন আশানুরূপ ফল করতে পারেন নি হার্দিক (Hardik Pandeya)। এরপর থেকেই নানা রকম কটাক্ষের সম্মুখীন হতে হয় তাঁকে। শুধু তাই নয় শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ ফিট না থাকা সত্ত্বেও কেন তাঁকে সেই ম্যাচে খেলতে নামিয়েছিলেন বিরাট কোহলি (Virat Kohli) এই নিয়ে ও প্রশ্ন উঠতে শুরু করে।  এবার মাঠের বাইরে এসেও বিরাট সমস্যার ভারতীয় দলের এই ক্রিকেট তারকা।

সম্প্রতি, রবিবার অর্থাৎ ১৪ই নভেম্বর দুবাই থেকে মুম্বই ফিরেছেন হার্দিক পান্ডিয়া (Hardik Pandeya) । আর মুম্বই এয়ারপোর্টে (Mumbai Airport) পা রাখতেই জড়ালেন অন্য সমস্যায়। মুম্বই বিমানবন্দরে শুল্ক বিভাগ (Customs Department) তাঁর ৫ কোটি মূল্যের দুটি ঘড়ি বাজেয়াপ্ত করেছে। প্রথমে জানা যায়, ভারতীয় মূদ্রায় ঘড়ি দু'টির মূল্য প্রায় ৫ কোটি টাকা। এমন বহুমূল্য ঘড়ি দু'টির কোনও রশিদ ছিল না হার্দিকের কাছে এবং তিনি আগে থেকে ঘড়ি দু'টির কথা উল্লেও করেননি বলে খবর। ফলে কাস্টমস কর্মকর্তারা তার ঘড়ি বাজেয়াপ্ত করেন।

 

এবার সেই নিয়ে মুখ খুললেন হার্দিক (Hardik Pandeya)।  এই ঘড়ি তার নিজের কেনা বলেই দাবি করেছেন তিনি। ঘড়ি কান্ডে ৫ কোটির তথ্য না নাকচ করে টুইটারে হার্দিক (Hardik Pandeya) লেখেন, 'সোমাবার, ১৫ নভেম্বর ভোরে দুবাই থেকে দেশে ফেরার পর আমি স্বেচ্ছায় মুুম্বইয়ের কাস্টমস বিভাগে (Customs Department) গিয়ে আমার আনা জিনিসপত্রের প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট দিই এবং তার জন্য প্রয়োজনীয় মূল্য দিতেও রাজি হই। আমার কাস্টমসে যাওয়া নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) অপপ্রচার চলছে।' পাশাপাশি হার্দিক আরও জানান, 'যে ঘড়ি দুটি নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে তার মূল্য আদতে ১.৫ কোটি টাকার কাছাকাছি যেটিকে ৫ কোটি বলে রটানো হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media)।' পাশাপাশি দেশের সব নিয়মনিয়ম কানুন সর্বদা মেনে চলেন বলে ও দাবি তুলেছেন হার্দিক। টুইটারের বিবৃতিতে হার্দিক লেখেন, 'আমি দেশের সব ধরণের নিয়মকানুন সব সময়ই মেনে চলি এবং সমস্ত এজেন্সিকে তার যোগ্য সম্মান দিই। আমি মুম্বই কাস্টমস বিভাগ থেকে সমস্ত রকমের সহযোগিতা ও পেয়েছি এবং ওদেরও আমার তরফে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি। এই বিষয়টা মেটানোর জন্য ওদের যা যা প্রয়োজনীয় তথ্য এবং ডকুমেন্ট প্রয়োজন, তা আমি দিতে রাজি। আমার বিরুদ্ধে আইনভঙ্গ করার সমস্ত অভিযোগ কেবল একটি মিথ্যা রটনা।'

আরও পড়ুন- T20 WC 2021- রাশিদ খানের 'কাকা' ও 'মামা'-কে চেনেন, তারাও বিশ্বের তারকা ক্রিকেটার

আরও পড়ুন- India vs Pakistan সিরিজের ভবিষ্যৎ কী, আপডেট দিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়

আরও পড়ুন- Sachin Tendulkar- ২২ গজে আবির্ভাবের ৩২ বছর পার, ছোট্ট ছেলেটা এখন 'ক্রিকেট ঈশ্বর'

 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios