উইকেট কিপিং দক্ষতার দিক থেকে বিচার করলে তিনি বর্তমানে ভারতের এক নম্বর উইকেট রক্ষক। সেই কথা স্বীকার করেছেন স্বয়ং ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলিও। ব্যাট হাতে নিজের যোগ্যতা বারবার টেস্ট ক্রিকেট প্রমাণ করেছেন। উইকেটের পেছনে এমন কিছু অস্বাভাবিক ক্যাচ তিনি ধরেছেন যার জন্য অনেকেই তাকে সুপারম্যান আখ্যা দিয়েছেন। তিনি ঋদ্ধিমান সাহা। কিন্তু মহেন্দ্র সিং ধোনি টেস্ট ক্রিকেটকে তাড়াতাড়ি বিদায় না জানালে, ভারতীয় দলে যে তার জায়গা হত না তাও ভাল করেই জানেন ঋদ্ধি। ধোনি থাকাকালীন স্কোয়াডে থেকে ধোনির কাছ থেকে যতটা সম্ভব শেখারও চেষ্টা করেছেন বাংলার ঋদ্ধিমান সাহা।

আরও পড়ুনঃএখনই অনুশীলনে ফিরছে না টিম ইন্ডিয়া, জানিয়ে দিল বিসিসিআই

সম্প্রতি এক টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে ঋদ্ধি জানিয়েছেন, ‘আমি এমএস ধোনির পরিবর্ত নই। আমি তখনই খেলার সুযোগ পেয়েছি, যখন ও টেস্ট খেলা ছেড়ে দেয়। তার আগে ওর নেতৃত্বে আমার টেস্ট অভিষেক হয়েছিল লক্ষ্মণ আঙুলে চোট পেয়েছিল বলেই। নাগপুরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ভিভিএসের ব্যাকআপ হিসেবে রোহিতকে ডেকে নেওয়া হয়েছিল। রোহিত বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের হয়ে প্রস্তুতি ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছিল। ম্যাচের দিন অনুশীলেনর সময় রোহিতের সঙ্গে আমার ধাক্কা লাগে। দু’জনেই গোড়ালিতে চোট পাই। তবে ওর চোট ছিল বেশি। ধোনি যখন টস করতে যাচ্ছে, তখন আমি বদ্রিনাথকে বল ছুঁড়ে ব্যাটিং প্র্যাকটিস দিচ্ছিলাম। যাওয়ার ধোনি বলে যায়, সাহা তুই খেলছিস। নাহলে কার্স্টেন আমাকে জানিয়ে দিয়েছিলেন ধোনি খেলছে, তাই আমার সুযোগ হবে না।' ঋদ্ধি আরও জানিয়েছেন, ‘আমি জানতাম, ধোনি খেললে কখনই আমার সুযোগ হবে না। কেউই মাঠের বাইরে বসে থাকতে চায় না। তবে ধোনি দলে থাকলে বাইরে বসে থাকা ছাড়া অন্য কোনও বিকল্পও থাকে না। সুতরাং, আমি ওর থেকে শেখার চেষ্টা করতাম। ওর কিপিং, ওর ব্যাটিং, চকিতে স্টাম্পিং, সবকিছুই শেখার মতো বিষয়। পরে যখনই সুযোগ পেয়েছি, পারফর্ম করার সময় সেই শিক্ষাগুলোই কাজে লাগিয়েছি।’

আরও পড়ুনঃকাশ্মীর ভারতের ছিল,আছে ও থাকবে,আফ্রিদিকে জবাব শিখর ধওয়ানের,মুখ খুললেন যুবরাজও

আরও পড়ুনঃমধ্যরাতে বুন্দেশলিগায় মুখোমুখি লেভারকুসেন ও ওয়ার্ডার ব্রেমন

বর্তমানে লকডাউনের জেরে পরিবারের সঙ্গে বাড়িতেই জীবন কাটাচ্ছেন ভারতীয় উইকেট রক্ষক। কবে থেকে ফের মাঠে নামতে পারবেন তা ঋদ্ধিরও অজানা। তাই বাড়িতেই কখন ফিটনেস ট্রেনিং, জিম করছেন তিনি। প্লাস্টিক বল ছুড়ে ব্যাটিং প্র্যাকটিসও করেছেন তিনি।সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রকাশ্যেও এসেছে সেই সব ছবি। বর্তমানে ভারতীয় দলে ঋষভ পন্থ যে তার প্রতীদ্বন্দ্বী তাও মেনে নিয়েছেন ঋদ্ধি। কিন্তু তারপরও তিনি ও পন্থ যে খুব ভাল বন্ধু সেই কথা স্বীকার করেছেন ঋদ্ধি। এখন ভারতের সেরা উউকেট রক্ষকের লক্ষ্য একটাই নিজেকে যতটা সম্ভব ফিট রাখা ও সুযোগ পেলেই দলের হয়ে পারফর্ম করা।