সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ আয়োজিত হওয়ার কথা থাকলেও, তা আগেই বাতিল  করা হয়েছে।  টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ছিল অক্টোবর-নভেম্বরে। করোনা ভাইরাস আতঙ্কের কারমে এই বছরের মত তাও বাতিল করেছে আইসিসি। পরপর দুটি আন্তর্জাতিক ইভেন্ট বাতিল হওয়াতে উজ্জ্বল হয়েছে আইপিএলের ভবিষ্যৎ। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আয়োজন করতে জোরকদমে ময়দানে নেমে পড়েছে বিসিসিআই আধিকারিকরা। এবার এসিয়া কাপ ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাতিল করা নিয়ে সরব হলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন পেস বোলার শোয়েব আখতার। আইসিসির বিরুদ্ধে তোপ দেগে শোয়েবের অভিযোগ, আইপিএল আয়োজনের জন্যই এশিয়া কাপ ও টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে এ বছরের জন্য।

আরও পড়ুনঃএবার গ্রেগ চ্যাপেলকে সপাটে দিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

টি২০ বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ বাতিলের সিদ্ধান্তে বেজায় চটেছেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস। পাকিস্তানের এক টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকারে শোয়েব আখতার ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে জানিয়ছেন,কজন ক্ষমতাবান ব্যক্তি কিংবা একটা ক্ষমতাশীল বোর্ডই তো ঠিক করে দেয়, কার লাভ হবে, আর কে ভুগবে। এশিয়া কাপ আর টি-২০ বিশ্বকাপ এবছর আয়োজন করাই যেত। আরও একবার ভারত-পাকিস্তানের মুখোমুখি হওয়ার সুযোগ ছিল। কিন্তু ওরা সেটা হতে দিল না। এর পিছনে অনেক কারণ আছে। এত বিস্তারিত যাব না। কিন্তু আমি আগেই বলেছিলাম দুটো টুর্নামেন্টের কোনওটাই হবে না। টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ গোল্লায় যাক, আইপিএল-এর ক্ষতি করা যাবে না।' বিশ্বকাপ বাতিলের জন্য আইসিসির বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন শোয়েব আখতার।

আরও পড়ুনঃশেষ ম্যাচে চেলসিকে হারিয়ে ট্রফি পেল লিভারপুল, দেখুন ইপিএল চ্যাম্পিয়নদে সেলিব্রেশনের সব মুহূর্ত

আরওচিনে নিন বিশ্বের সব থেকে সেক্সিয়েস্ট ফুটবল রেফারিদের, যাদের রূপ ঝড় তোলে হৃদয়ে

শুধু শোয়েব আখতার নয়, এশিয়া কাপ ও টি২০ বিশ্বকাপ বাতিল হয়ে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ আরও এক প্রাক্তন পাকিস্তান ক্রিকেটার রশিদ লতিফ। তিনি বলেছেন,'সরকারি ঘোষণার অনেক আগে থেকেই ভিতর-ভিতর বিসিসিআইয়ের সঙ্গে কথা বলে আইসিসি বিশ্বকাপ বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিল। ইচ্ছাকৃতভাবেই এমনটা করা হয়েছে।' করোনা ভাইরাসের কারণে এমনিতেই ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে পিসিবি। টি২০ বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ বাতিল হওয়ায় সেই ক্ষতির পরিমাণ আরও বেড়েছে। কিন্তু আইপিএল হলে পিসিবির কোনও লাভ নেই। পাকিস্তানের প্লেয়ারদের আইপিএলে খেলার অনুমতিও নেই। ফলে ক্রিকেটে বিশেষেজ্ঞদের মতে, আর্থিকভাবে দেশের বোর্দের দেওয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ার কারণেই কী আইপিএল হওয়াকে মেনে নিতে পারছেন পাক তারকারা?