সাবাইনা পার্কে টিম ইন্ডিয়া যে চতুর্থ দিনই জয় তুলে নেবে সেটা সবাই একরকম ধরেই নিয়েছিলেন। বাস্তবটাও কল্পনার মতই। হাতে আট উইকেট নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ যখন চতুর্থ দিনের লড়াইতে নেমেছিল তখনও জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৪২৩ রান। টিম ইন্ডিয়ার তৈরি করা রানের পাহাড়ে ওঠা, টি২০'র মেজাজে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ পক্ষে সম্ভব ছিল না। কিন্তু যেটা মাঠে থাকা ভিভ রিচার্ডসদের সব থেকে কষ্ট দিল সেটা, হোল্ডারের দলের আত্মসমর্পণ। প্রথম টেস্টে ৩১৮ রানে হারের পর দ্বিতীয় টেস্টে ২৫৭ রানে হেরে আবার ঘরের মাঠে হোয়াইট ওয়াশ হতে হল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। টি২০ সিরিজ, একদিনের সিরিজ টেস্ট সিরিজ, ক্যারেবিয়ানদের হাত খালি।

দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতীয় বোলারদের মিলিঝুলি পারফরম্যান্স ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটসম্যানদের প্যাভেলিয়ানে ফেরার রাস্তা তৈরি করল। ৩টি করে উইকেট সামি ও জাদেজার। ২টি উইকেট ইশান্তের। প্রথম ইনিংসে হ্যাটট্রিক করা বুমরা নিলেন ১টি উইকেট। একই সঙ্গে বলতে হবে বিরাট কোহলির ফিল্ডিংয়ের কথা।  ক্রিজে জমে যাওয়া ব্রুকস একটু আলগা দিতেই তাঁকে রান আউট করলেন বিরাট। এই জয়টা যে ভারতীয অধিনায়ক হিসেবেও কোহলিকে এক অনব উচ্চতায নিয়ে গেল। ভারত অধিনায়ক হিসেবে দেশের বাইরে সব থেকে বেশি টেস্ট জয়ের কৃতিত্ব এখন বিরাটের। অধিনায়ক বলছেন সামি বুমরাদের জন্যই তাঁর এই সাফল্য।  

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে এই টেস্ট সিরুজ দিয়েই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পা রেখেছিল টিম ইন্ডিয়া। একশ শতাংশ ফল নিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শীর্ষেও বিরাটের দল। ২ ম্যাচ শেষে ভারতের পয়েন্ট এখন ১২০। প্রথম টেস্ট শতরানের পাশাপাশি দ্বিতীয় টেস্ট হনুমা বিহারির জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে। কারণ বুমরা, সামিদের কৃতীত্বের মাঝেও ম্যাচ সেরা হলেন হনুমা বিহারি।