ভারতীয় ক্রিকেটে শেষ কিছু বছরে ঘটেছে দুরন্ত প্রত্যাবর্তন। ভারতীয় দলের স্পিনাররা সব সময় নজর কাড়েন সেই নিয়ে নিশ্চত গোটা ক্রিকেট বিশ্ব। ঘরের মাঠ হোক বা বিদেশে। ভারতীয় স্পিনাররা প্রভাব ফেলবেই সেই নিয়ে বিশেষ করে চিন্তায় থাকেন অন্য দলের ব্যাটসম্যানরা। তবে শেষ কিছু বছর ধরে স্পিনারদের পাশাপাশি ভারতীয় দলে নিজেদের প্রমান করছেন পেসাররাও। পেস বোলার হিসাবে দুরন্ত কাজ করছেন বর্তমানের পেসার শামি, বুমরা, উমেশ, ঈশান্ত, ভুবনেশ্বররা। শেষ কিছু বছর ধরে টেস্ট ক্রিকেটে দেশ ও বিদেশের মাটিতেও নজর কেড়েছেন ভারতীয় বোলাররা। এবার সেই ভারতীয় বোলারদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ প্রাক্তন অজি ক্রিকেটার ইয়ান চ্যাপেল। ভারতীয় পেসাররা যে কোনও স্থানে যে কোনও পরিবেশে যে কোনও দেশের ব্যাটসম্যানদের বেগ দেবেন বলে দাবি করেছেন ইয়ান চ্যাপেল।

আরও পড়ুন, ভারত বাংলাদেশ ম্যাচে থাবা বসাতে পারে দিল্লির বায়ু দূষণ, চিন্তিত আয়োজকরা

কিছুদিন আগেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে প্রোটিয়াদের হোয়াইট ওয়াশ করেছে কোহলির ভারত। সেই ম্যাচগুলোতেও কার্যকরি ভূমিকা পালন করেছিলেন ভারতীয় পেসাররা। এই সিরিজে বুমরা না থাকলেও উমেশ, শামিদের দাপটে পুরো টেস্টে রাজত্ব করেছেন বিরাটের দল। আর ভারতীয় দলের এই বোলিং লাইন আপ নিয়ে ইয়ান চ্যাপেল বলেন, 'ভারতীয় পেস বোলাররা ভারতীয় ক্রিকেটে একটা নতুন দিক খুলে দিয়েছে। এমনকি জসপ্রীত বুমরাকে ছাড়াও দুরন্ত বোলিং লাইন আপ ভারতের। অবশেষে ভারতীয় দলকে পেস বোলিংয়ে স্বীকৃতি দেওয়া যেতে পারে। পুরো দলের যেই ভারষাম্য এই মুহূর্তে আছে সেটা দারুণ। আর এই জায়গায় দাঁড়িয়ে যে কোনও দেশকে যে কোনও জায়গায় টেক্কা দেবে ভারতীয় দলের পেস বোলাররা। বিদেশের মাটিতেও ভালো করবে এই দল। কারণ এখন ভারতীয় বোলারদের পুরোপুরি তৈরি বলে মনে হচ্ছে।'

আরও পড়ুন, ভারতীয় ক্রিকেট তারকাদের দীপাবলির শুভেচ্ছা, শব্দহীন দীপাবলির বার্তা সচিনের

দেশের পাশাপাশি ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে নিজেদের ছাপ ফেলে দিয়েছেন বুমরা, শামি, ঈশান্ত, ভুবনেশ্বর, উমেশরা। এবার আগামী দিনে বিশ্ব ক্রিকেটে বাকিদের আরও টেক্কা দেওয়ার চেষ্টায় ভারতীয় বোলিং ব্রিগেড। এই বিষয় নিয়ে ইয়ান চ্যাপেল আরও বলেন, 'ভারতে দারুণ পেস বোলাররা আছেন। একই সঙ্গে পেস বোলার অলরাউন্ডারও আছে। হার্দিক পান্ডিয়ার মতন ক্রিকেটাররাও দলে আছে। তাই আলাদা করে ভাবতে হবে না বিরাট কোহলিকে। আর ব্যালেন্স নিয়েই আগামী দিনে ঘরের মাঠে ও বিদেশের মাঠে ভালো ক্রিকেট খেলবে ভারত।'