ঘরোয়া ক্রিকেটে ৫০ ওভারের লড়াইতে চ্যাম্পিয়ন হল কর্নাটক। বিজয় হাজারে ট্রফির ফাইনালে ঘরের মাঠে মণীশ পাণ্ডের দল জিতল ৬০ রানে। ফাইনালে হ্যাটট্রিক করে নজর কাড়লেন কর্নাটকের বোলার অভিমন্যু মিঠুন। তামিলনাড়ু ইনিংসের শেষ ওভারে হ্যাটট্রিক করলেন মিঠুন। শুক্রবারই ছিল তাঁর জন্মদিন। টস জিতে দীনেশ কার্তিকের তামিলনাড়ুকে প্রথমে ব্যাটিং করতে পাঠান কর্নাটকের অধিনায়ক মণীশ পাণ্ডে। তাঁর মাথায় ছিল বৃষ্টির পূর্বাভাস। 

আরও পড়ুন - রোহিতদের মুখোমুখি হওয়ার আগেই ধাক্কা খেল বাংলাদেশ, ছিটকে গেলেন সইফুদ্দীন

প্রথমে ব্যাটিং করে তারকা খচিত তামিলনাড়ু ২৫২ রান করে।  ৮৫ রান। করেন অভিনভ মুকুন্দ। ৬৬ রান করেন বাবা অপরাজিত। রাজ্য দলের হয়ে তিন নম্বরে ব্যাটিং করতে নেমেছিলেন ভারতীয় দলের তারকা অফ স্পিনার আর অশ্বিন। আর ব্যাট করতে নেমে বিতর্কে জড়িয়ে পরেন অশ্বিন। তিনি যখন ব্যাটিং করতে নামেন তখন অশ্বিনের হেলমেটে ছিল বিসিসিআইয়ের লোগো। যা নিময় বিরুদ্ধে। তামিলনাড়ু ইনিংসের শেষ ওভারে বোলিং করতে এসেছিলেন বার্থডে বয় অভিমন্যু মিঠুন। পরপর তিন বলে উইকেট নিয়ে প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে বিজয় হাজারে ট্রফির ফাইনালে হ্যাটট্রিক করলেন তিনি। 

আরও পড়ুন - কবে ফিরবেন বুমরা, জানা যেতে পারে দীপাবলির পর

জবাবে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই একটি উইকেট হারায় কর্নাটক। কিন্তু তারপর কেএল রাহুল ও ময়ঙ্ক আগরওয়ালের পার্টনারশিপ জয়ের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল কর্নাটককে। ২৩ ওভারে খারাপ আলোর জন্য ম্যাচ বন্ধ হয়ে যায়। তখন এক উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান করেছিল মণীশ পাণ্ডের দল। খেলা আর শুরু না হওয়ায় ভিজেডি নিয়মে ট্রফি জিতে নেয় কর্নাটক। এই নিয়ে চার বার বিজয় হাজারে ট্রফি চ্যাম্পিয়ন হল কর্নাটক। 

আরও পড়ুন - ক্রিকেটারদের জল খাওয়াতে, বোতল হাতে মাঠে নামলেন প্রধানমন্ত্রী, ছবি ভাইরাল