আইপিএলের তৃতীয় ম্যাচেও ব্যাট-বলের দুরন্ত লড়াই উপভোগ করছে ক্রিকেট বিশ্ব। দুবাইতে ম্যাচ চলছে  বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্য়াঙ্গালোর ও ডেভিড ওয়ার্নারের সানরাইজার্স হায়দরাবাদের। এদিন ম্য়াচে প্রথমে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ডেভিড ওয়ার্নারের। রাতের দিকে ডিউয়ের কারণে ব্যাট করা কিছুটা সুবিধা হয়। সেই জন্য টসে জিতে ব্যাঙ্গালোরকে ব্যাটিং করে পাঠান হায়দরাবাদ অধিনায়ক। আরসিবির হয়ে ওপেন করতে নামেন অ্যারন ফিঞ্চ ও দেবদূত পাড়িকল। আর অভিষেকেই দূরন্ত শুরু করেন কর্ণাটকি ব্যাটসম্যান পাড়িকল। 

শুরু থেকে হায়দরাবাদের বোলারদের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্বক ব্য়াটিং শুরু করেন দেবদূত পাড়িকল। প্রথম ৪ ওভার শেষে আরসিবির স্কোর ছিল ৩২। যার মধ্যে ২৯  রান আসে পাড়িকলের ব্যাট থাকে। একের পর লএক বাউন্ডারি মেরে সানরাইজার্স বোলারদের উপর চাপ সৃষ্টি করেন দেবদূত। ৫ ওভার শেষে আরসিবির স্কোর দাঁড়ায় বিনা উইকেটে ৪৮। পঞ্চম ওবারের বোলিংয়ের শুরু করেন মিচেল মার্শ। কিন্তু চোট খেয়ে বাইরে চলে যান তিনি। সেই ওভার শেষ করেন বিজয় শংকর। ওভারে আসে ১৬ রানও। ৬ ওভার অর্থাৎ প্রথম পাওয়ার প্লের শেষে আরসিবিরি স্কোর দাঁড়ায় বিনা উইকেটে ৫৩।  ৩৭ রানে অপরাজিত থাকেন দেবদূত পাড়িকল ও ১২ রানে অপরাজিত থাকেন অ্যারন ফিঞ্চ।

পাওয়ার প্লের বল করতে আসেন সানরাইজার্সের সেরা অস্ত্র রাশিদ খান। তার ওভারে সামলে ব্যাটিং করে আরসিবি ওপেনাররা। নেন ৬ রান। ৭ ওভারে ৫৯ রান করে কোহলির দল।ন মাঝে নবম ওভারে রাশিদ খানকে ও একটি চার ও একটি ছয় মারেন অ্যারন ফিঞ্চ। ৯ ওভার শেষে আরসিবির স্কোর পৌছায় ৭৫ রানে। ১০ ওভারেই  নিজের অর্ধশতরান পূরণ করেন দেবদূত পাড়িকল। অভিষেকেই ৫০ করে সকলকে চমকে দেন তিনি। ১০ ওভার শেষে আরসিবি স্কোর দাঁড়ায় বিনা উইকেটে ৮৬।