প্রথম আইপিএল জয়ের বর্ষপূর্তিতে বিতর্কে জড়ালেন কলকাতা নাইট রাইডার্স। বিতর্কের সূত্রপাত একটি ট্যুইকে কেন্দ্র করে। ২০১২ সালের ২৭ মে প্রথমবার আইপিএল জিতেছিল কেকেআর। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, ব্র্যান্ডন ম্যাকালামের পরবর্তী সময়ে অধিনায়ক গৌতম গম্ভীরের অধিনায়কত্বে প্রথমবার ট্রফি জয়ের স্বাদ পেয়েছিল কিং খানের দল। ২০১২ সালের ফাইনালে চেন্নাই ১৯০ রানের স্কোর তাড়া করে ম্যাচ জিতেছিল নাইটরা। ম্যাচে দুরন্ত ব্যাটিং করেছিলেন মনবিন্দর সিং বিসলা ও জ্যাক কালিস। তবে রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে শেষ ওভারে ব্র্যাভোর বলে চার মেরে খেলা শেষ করেছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটার তথা বাংলা রঞ্জি দলের প্রাক্তন অধিনায়ক মনোজ তিওয়ারী। বৃহস্পতিবার প্রথমবার আইপিএল জয়ের বর্ষপূর্তিতে একটি ট্যুইট করে কেকেআর। ট্যুইটটিতে গৌতম গম্ভীর, বিসলা, ম্যাকালাম, সুনীল নারিন, ব্রেট লি সহ অন্যান্যদের ট্যাগ করলেও, সেই দলের অন্যতম দুই সদস্য মনোজ তিওয়ারী ও বাংলাদেশের তারকা অলরাউন্ডার শাকিব আল হাসানকে ট্যাগ করতে ভুলে যায় কেকেআর। আর এতেই অপমানিত বোধ করেন মনোজ তিওয়ারী। 

 

 

আরও পড়ুনঃআমফান মোকাবিলায় আর্থিক সাহায্য কেকেআরের, শহরজুড়ে বৃক্ষরোপণ করবে কিং খানের দল

আরও পড়ুনঃগাব্বায় ভারত-অস্ট্রেলিয়া প্রথম টেস্ট,অ্যাডিলেডে হবে ঐতিহাসিক পিঙ্ক বল টেস্ট

যে রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে উইনিং হিট যার হাতে, তাকেই ট্যুইটে ট্যাগ না করায়, তার পালটা প্রতিক্রিয়া দেয় মনোজও। পালটা ট্যুইটে মনোজ লেখেন,'অনেকের মতো আমারও এই দিনের সঙ্গে অনেক ভাল স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে। এই স্মৃতি কখনও মুছে যাবে না। কিন্তু এ রকম এক বিশেষ দিনে আমাকে ও শাকিব আল হাসানকে ট্যাগ করতেই ভুলে গেল? সত্যি খুব অপমানিত বোধ করছি।'নাইটদের হয়ে সে বছরে ১৫টি ইনিংসে ২৬০ রান করেছিলেন মনোজ। স্ট্রাইক রেট একশোর উপরে। একটি হাফসেঞ্চুরিও ছিল সে বছর। অথচ তাঁকেই এই বিশেষ দিনে ট্যাগ না করায় একটু হলেও হতাশ বাংলার ক্রিকেট ভক্তরা।

 

 

মনোজের ট্যুইটের পরেই ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামে নাইট কর্তৃপক্ষ। ফের একটি ট্যুইট করে কেকেআরের তরফে বলা হয়,'এমন একটি বিশেষ দিনে আমরা স্পেশাল নাইটকে ভুলিনি। এমন একটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে যেখানে তুমি ও সাকিবও রয়েছে। ২০১২ আইপিএল জয়ের সেই রাতের অন্যতম হিরো তুমি।' কেকেআর কর্তৃপক্ষ ড্যামেজ কন্ট্রোলের চেষ্টা করলেও, ভুলবশত হওয়া ভুলের কারণে প্রাক্তন দলের এহেন আচরণে ক্ষুব্ধ, অপমানিত ও দুঃখ অনুভব করেছেন মনোজ। মনোজের প্রতিক্রিয়া স্বাভাবিক বলেও মনে করছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। 

 

;