ক্রাইস্টচার্চ টেস্টেও হার মানল ভারত। ২ টেস্টের সিরিজে এটা ছিল দ্বিতীয় টেস্ট। এর আগে ওয়েলিংটনে প্রথম টেস্টেও হার মেনেছিল ভারতীয় ক্রিকেট দল। ক্রাইস্টচার্চ টেস্টে জয়ের সঙ্গে সঙ্গে সিরিজের সবকটি টেস্টেই জয়ী হল নিউজিল্যান্ড। ২-০-তে বিরাট কোহলিদের হোয়াইট ওয়াশ করে দিল তারা। ৭ উইকেটে জয় ছিনিয়ে নিল কেন উইলিয়ামসন ব্রিগেড। ম্যান অফ দ্য ম্যাচ জেমিসন। তিনি প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ডের জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন- পিচ রোলারের স্টিয়ারিং থেকে তরমুজ চাষ, মাহির ভাইরাল ভিডিওতে মাত নেট দুনিয়া

দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১২৪ রানে অল-আউট হয়ে যায় ভারত। দ্বিতীয় দিনের শেষে ক্রিজে ছিলেন প্রথম ইনিংসে অর্ধশতরান করা হনুমা বিহারি এবং উইকেটকিপার ঋষভ পন্থ। ঋষভের চয়ন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। তাদের তোলা প্রশ্ন যে কতটা সত্যি তা আবার প্রমাণিত হলো ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ইনিংসে। মাত্র ৪ রান করে উইকেটের পেছনে খোঁচা দিয়ে ফিরে যান তিনি। প্রথম ইনিংসে লড়লেও দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যর্থ হনুমা বিহারি। ৯ রান করে সাউদির সুইংয়ে পরাস্ত হয়ে গ্যালারিতে ফেরেন তিনি তাদের পর ব্যাট হাতে নামা অলরাউন্ডার জাদেজা ১৬ রানে অপরাজিত থাকেন। নিউজিল্যান্ডের সামনে মাত্র ১৩২ রানের লক্ষ্য রাখতে সমর্থ হয় ভারত। 

জয়ের লক্ষে ব্যাট করতে নেমে নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার ল্যাথাম ও বান্ডেল ১০০-ও বেশি রান তুলে দেন। ল্যাথাম ৭৪ বলে ৫৪ রান করে উমেশ যাদবের বলে উইকেটকিপার ঋষভ পন্থের হাতে ক্যাচ তুলে ফিরে যান। ব্লুন্ডেল-কে ৫৫ রানে আউট করেন জশপ্রীত বুমরাহ। তিনি ১১৩ বলে ৫৫ রান করেন। কিউয়ি অধিনায়ক কেন উইলিমায়সন মাত্র ৫ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। যদিও ততক্ষণে জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। তাদের দুই ব্যাটসম্যান টেলর এবং নিকোলস ৫ রান করে অপারাজিত থেকে দলকে জয় এনে দেন। আর সেই সঙ্গে টেস্ট সিরিজে ভারতকে ২-০তে পরাজিত করে হোয়াইট ওয়াশ করে দেয় কিউয়িরা।   

আরও পড়ুন- টি-২০ মারকাটারি বিশ্বযুদ্ধ, কারা রয়েছেন বিশ্ব একাদশে, জেনে নিন

প্রথম ইনিংসে জেমিসন ভেঙেছিলেন ভারতীয় ব্যাটিংয়ের কোমর। দ্বিতীয় ইনিংসে সেই দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন বোল্ট। মায়াঙ্ক আগরওয়াল, চেতেশ্বর পূজারা এবং নাইটওয়াচম্যান উমেশ যাদবের উইকেট তুলে নিয়েছিলেন আগের দিনই। আজ সকালে তুললেন ঋষভ পন্থ-কে। ভারতীয় ব্যাটিংকে ভেঙে চুরমার করে ৪ উইকেট নেন তিনি। একটি করে উইকেট নিয়েছেন ওয়াগনার এবং গ্র্যান্ডহোম। ৩ উইকেট নিয়ে বোল্টকে যোগ্য সঙ্গত সাউদির। প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়া জেমিসন অবশ্য দ্বিতীয় ইনিংসে কোনও উইকেট পাননি। 

আরও পড়ুন- উইকেটের মাঝে দৌড়োনোর নতুন কায়দা আবিস্কার করলেন আজম খান, মুহুর্তে ভাইরাল হল ভিডিও

ক্রাইস্টচার্চে প্রথম ইনিংসের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে ব্যর্থ ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে দুটি টেস্ট মিলিয়ে মোট ৪ টি ইনিংস খেলে ফেলেও বোল্ট-সাউদিদের বিষাক্ত সুইংয়কে সামলানোর কোনও উপায় খুঁজে বের করতে পারেনি ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। পৃথ্বী, মায়াঙ্ক বা পূজারারা বিক্ষিপ্ত ভাবে টুকটাক ভালো ইনিংস খেললেও দল হিসেবে ভালো খেলতে ব্যর্থ ভারত। ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ইনিংসে একজনও ব্যক্তিগত ভাবে ভালো কিছু করতে পারেননি। পুরো সিরিজ জুড়ে ব্যর্থ ভারত অধিনায়ক কোহলি। ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ইনিংসে সকলের নজর ছিল তার দিকে। কিন্তু মিডিয়াম পেসার কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের সুইংয়ে পরাস্ত হয়ে দ্বিতীয় ইনিংসেও শূন্য হাতে ফিরে যান তিনি।