করোনার বিরুদ্ধে লড়াইতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশের ক্রীড়াবিদরা। কখনও সোশ্যাল মিডিয়ায় সামাজিক সচেতনতার বার্তা দিয়ে, কখনও আবার প্রধানমন্ত্রী বা রাজ্যসরকারগুলির ত্রাণ তহবিলে দানের মাধ্যমে। দেশের প্রাক্তন থেকে বর্তমান ক্রিকেটার অনেকেই এগিয়ে এসছেন করোনা যুদ্ধে। এবার সেই লড়াইতে নাম লেখালেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচ রবি শাস্ত্রী। নিজস্ব ভঙ্গিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও বার্তা শেয়ার করেছেন রবি শাস্ত্রী। তাতে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইকে বিশ্বকাপের সঙ্গে তুলনা করেছেন কোহলিদের হেডস্যার। শুধু তাই নয় করোনা যুদ্ধকে ‘মাদার অফ অল ওয়ার্ল্ড কাপস’ বলে চিহ্নিত করলেন জাতীয় দলের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী।
আরও পড়ুনঃমে মাস থেকে ইতালিতে দর্শকশূণ্য মাঠে শুরু ফুটবল,ফেডারেশনের ভাবনা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন

বুধবার টুইটারে এক ভিডিয়ো বার্তা দেন তিনি। যাতে লেখা ছিল, “ঘরে থাকুন, নিরাপদে থাকুন।” সেই বার্তাতেই শাস্ত্রী বলেন, কোভিড-১৯ আমাদের সবার পিঠ দেওয়ালে চেপে ধরেছে। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইকে বিশ্বকাপের সঙ্গে তুলনাও করেছেন তিনি। তবে তাঁর উপলব্ধি, “এটা কোনও গড়পড়তা বিশ্বকাপ নয়। এটা সমস্ত বিশ্বকাপের মিলিত বিশ্বকাপের মতো।” করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূমিকার প্রশংসা করেছেন শাস্ত্রী। তিনি বলেছেন, “আমরা এই লড়াইয়ে জিততেই পারি। তবে তার জন্য প্রাথমিক ব্যাপারগুলোয় মন দিতে হবে। আর আমাদের প্রধানমন্ত্রী কিন্তু সামনে দাঁড়িয়ে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।” সরকারের নির্দেশাবলি মেনে চলতে আবেদন করেছেন শাস্ত্রী। বলেছেন, “কেন্দ্র সরকার, রাজ্য সরকার বা যাঁরা সামনে দাঁড়িয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে লড়ছেন, তাঁদের সবার দেওয়া নির্দেশই মানতে হবে। ঘরে থাকতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। কাজটা সহজ নয়। তবে ম্যাচ জিততে গেলে যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে তো যেতেই হবে।”
করোনাভাইরাসের জন্য বিশ্ব জুড়ে বন্ধ হয়ে রয়েছে সব ধরনের খেলা। অনির্দিষ্ট কালের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে আইপিএল ২০২০। টি২০ বিশ্বকাপের আকাশেও দেখা দিয়েছে কালো মেঘ। দেশেও করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। বাড়ছে মৃত্য মিছিলও। এই পরিস্থিতিতে কমেন্ট্রির স্টাইলে রবি শাস্ত্রীর বার্তা দেশবাসীর মনে নাড়া দেবে বলেই মনে করছেন সকলে। শাস্ত্রী ভিডিও শেয়ার করার সঙ্গে সঙ্গেই তা ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। মনে ধরেছে নেটিজেনদের।
আরও পড়ুনঃবাতিল হতে চলেছে আইলিগের বাকি ২৮টি ম্যাচ, খবর ফেডারেশন সূত্রে
আরও পড়ুনঃকরোনাার কোপ, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্রথম বাতি হল ট্যুর ডি ফ্রান্স প্রতিযোগিতা