দীপাবলির পর থেকে বায়ু দূষমের মাত্রায় রেকর্ড ভেঙেই চলেছে দিল্লি। শুক্রবার ওয়ার কোয়ালিটি ইন্ডেক্স বলছে এই মরসুমের সব থেকে বেশি বাযু দূষণের মাত্রা দেখা গেছে শুক্রবার। এই তথ্য রাতের ঘুম উড়িয়েছে দিল্লিবাসীর। সরকারে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত সমস্ত স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। রাজধানীতে এখন স্বাস্থ্যে জরুরি অবস্থা। এই অবস্থায় ভারত বাংলাদেশ টি-২০ ম্যাচ নিয়ে যথেষ্ট চাপে রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। সভাপতি সৌরভ প্রতি মূহুর্তের আপডেট নিচ্ছেন।  বাযু দূষণের জেড়ে ক্রিকেটারদের কোনও অসুবিধে হচ্ছে কি না সেটা নিয়ে ভারতীয় দলের অধিনায়কের সঙ্গেও কথা বলেছেন মহারাজ। 

আরও পড়ুন - পিঙ্ক বলে সব থেকে সফল ভারতীয় ব্যাটসম্যান, ‘গোলাপী’ রহস্য ফাঁস করলেন পূজারা

টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়ক রোহিত শর্মা জানিয়েছেন, ভারতীয় দলের কোনও ক্রিকেটারের ম্যাচ খেলতে কোনও সমস্যা নেই। ভারতীয় দল শুক্রবার বিকেল অনুশীলন করে। এই অনুশীলন পর্বে কোনও ক্রিকেটারের সমস্যা হয়নি বলেই জানিয়েছেন রোহিত। বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা মাঠে অনুশীলন করছেন মাস্ক পরে। বাংলাদেশ কোচ শুক্রবার বলেছিলেন অবস্থা খুব ভাল না হলেও, চলবে। এই দুই দলের আশ্বাস বাণীর এখন সৌরভের বিসিসিআইয়ের কাছে সব থেকে বড় সম্পদ। কারণ একাধিক এনজিও এই ম্যাচ সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেছে। কিন্তু শেষ মুহুর্তে এসে সেটা সম্ভব নয় বলেই দিল্লিতেই ম্যাচ আয়োজন করতে হচ্ছে বিসিসিআইকে। 

আরও পড়ুন - দাপুটে জয় পুরুষ ও মহিলা দলের, অলিম্পিকের দোরগোড়ায় ভারতীয় হকি

ক্রিকেটারদের সমস্যা না হলেও দিল্লিবাসীর জন্য যে দীপাবলি উপহারের আয়োজন করেছিল ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড সেটা উপভোগ করা হবে না দিল্লিবাসীর। ম্যাচ আয়োজনের জন্যও বিসিসিআই ও ডিডিসিএ কর্তারা দিল্লির কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের সঙ্গে দেখা করেছেন। পর্ষদের পক্ষ থেকে ম্যাচ আয়োজন নিয়ে কয়েকটি বিষয়ের ওপর নজর রাখতে বলা হয়েছে। প্রথমত স্টেডিমায়ের ভেতর যত গাঠ আছে, তা জল দিয়ে পরিস্কার করতে হবে। স্টেডিয়ামের ২ কিলোমিটারের মধ্যে বায়ু দূষণ ছড়ানোর মত কোনও কিছু দেখলে তা সঙ্গে সঙ্গে জানাতে হবে দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদকে। সেই মতই কাজ শুরু করেছে ডিডিসিএ। রবিবার সন্ধে সাতটা থেকে ম্যাচ।  সেই সময় কী ঘটে সেটাই এখন দেখাতে চান সবাই। 

আরও পড়ুন - ফুটবলে মিলছে ভারত-জার্মানি, মোদী-মর্কেল বৈঠকের মউ-এ আশার কিরণ