করোনা ভাইরাসের থাবা থেকে বাদ যায়নি ওপার বাংলাও। বাংলাদেশে ক্রমশ বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যাও। ইতিমধ্যই ৬ হাজারের বেশি মানুষকে বাংলাদেশে রাখা হয়েছে কোয়ারেন্টাইনে। মারণ কোভিড ১৯ ভাইরাসের জেরে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে গোটা বাংলাদেশ জুড়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে যথাসাধ্য চেষ্টা করছে বাংলাদেশ সরকার। সচেতনতা বৃদ্ধিতে চলছে প্রচারও। কিন্তু এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতিতেও এপার বাংলার মত ওপার বাংলাতেও শুরু হয়েছে মুখোশের কালো বাজারি। যা নিয়ে সোশাল সাইটে সরব হলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার রুবেল হোসেন।

আরও পড়ুনঃকরোনার থাবা ইংল্যান্ডের ক্রিকেটে, পিছিয়ে গেল ঘোরোয়া ক্রিকেট মরসুম

শুধু মাস্কের দামই নয়, বাংলাদেশ জুজ়ে কালোবাজারি চলছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের। যার ফলে নির্ধারিত দামের থেকে অনেক বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে মাস্ক ও স্যানিটাইজার। বাজারে তৈরি হয়েছে আকালও। ফলে সাধারণ মানুষের পক্ষে ১০ গুন, ২০ গুন বেশি দাম দিয়ে মাস্ক ও স্যানিটাইজার কেনা সম্ভব হচ্ছে না। এই কালোবাজারিদেরই তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেছেন রুবেল হোসেন।  এক ফেসবুক পোস্টে রবিবার রুবেল লিখেছেন, “লোভী ও নির্মম জাতি আমরা। করোনার নাম শুনেই ৫ টাকার মাস্ক ৫০ টাকা আর ২০ টাকার মাস্ক ১০০/১৫০ টাকা। কারণ, আমরা লোভী অমানুষ!” এখানেই থামেননি তিনি। লম্বা পোস্টে রুবেল আরও লিখেছেন, “মাস্ক, স্যানিটাইজার এবং মুদি বাজারের সমস্ত জিনিসপত্রের দাম বেড়েই চলেছে। ধিক্কার জানাই ওই সমস্ত লোভী মুনাফাখোর ব্যবসায়ীদের, যাঁরা কৃত্রিম সঙ্কট তৈরি করে দাম বাড়াচ্ছেন। তাঁরাই আসলে দেশের করোনাভাইরাস।”

;

আরও পড়ুনঃকরোনায় আক্রান্ত ইতালির লেজেন্ড ডিফেন্ডার পাওলো মালদিনি, আক্রান্ত তার ছেলেও

রুবেলের ফেসবু পোস্ট প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই সোশাল মিডিয়ায় প্রতিবাদে সরব হয়েছেন সকলে। অনেকেই রুবেলের সুরে সুর মিলিয়ে সোচ্চার হচ্ছেন। গোটা বিষয় নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশের সরকারকে আরও বেশি উদ্যোগি ও কঠোর হওয়ার কথাও বলেছেন অনেকে। রুবেল সহ বাংলাদেশের অন্যান্য ক্রিকেটারদের দেশের বিপদের সময় পাশে থাকারও আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ।

আরওপড়ুনঃকরোনা ভাইরাসে আক্রান্ত জুভেন্তাস তারকা পাওলো দিবালা, আক্রান্ত তার বান্ধবীও