বিশ্বে ক্রিকেট অব্যাহত করোনা ভাইরাসের প্রকোপ। এবার মারণ ভাইরাসের থাবা দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডে। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার কোনও ক্রিকেটার আক্রান্ত হননি। সোমবার ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার তরফ থেকে জানানো হয়েছে বোর্ডের সঙ্গে যুক্ত ৭ জন কোভিড ১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এই খবর প্রকাশ্য়ে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট মহলে। আপাতত আক্রান্ত ৭ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আরও পড়ুনঃরণদেব বসুকে করোনা ভাইরাসের সঙ্গে তুলনা করলেন অশোক দিন্দা

বর্তমানে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দক্ষিণ আফ্রিকাতেও চলছে লকডাউন। তবে সরকারের তরফে জানানো হয়েছে তৃতীয় দফার লকডাউনে শারীরিক সংযোগ হীন খেলার অনুমতি দেওয়া হবে। একইসঙ্গে সকল খেলার সংস্থাকে যত বেশি সম্ভব পরিমাণে করোনা পরীক্ষা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে প্রশাসনের তরফে। সরকারি নির্দেশ মিলতেই দক্ষিণ আফ্রিকা বোর্ড ১০০-র বেশি কর্মীর করোনা টেস্ট করায়। যাঁদের মধ্যে বোর্ডের কর্মচারী ছাড়াও অনুমোদিত সংস্থাগুলির কর্মী, কিছু চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড় ও ফ্র্যাঞ্চাইজি ট্রেনিং স্কোয়াডের কর্মীরাও ছিলেন। যাঁদের মধ্যে থেকে ৭ জনের নমুনা পজিটিভ এসেছে।

আরও পড়ুনঃ'আইপিএল আমাকে ছুড়ে ফেলে দিয়েছিল,আইপিএলেই নিজেকে প্রমাণ করতে চাই'

আরও পড়ুনঃ'মরিনি,বেঁচে আছি' রটনা উড়িয়ে নিজেই জানালেন মহম্মদ ইরফান

ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার তরফ থেকে নিয়ম মেনে আক্রান্তদের নাম প্রকাশ করা হয়নি। তবে একশো জনের মধ্যে মাত্র সাতজনের  রিপোর্ট পজেটিভ আসার খবরে খুব একটা চিন্তিত নয় ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার অ্যাক্টিং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার জ্যাকস ফউল। এই সংখ্য়া অত্যন্ত নগন্য বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে বোর্ডের তরফ থেকে বাকিদের সকল প্রকার সাবধানতা অবলম্ব করার নির্দেশ দেওয়া হয়ছে। বাকি কর্মীদের করোনা টেস্ট করা হবে বলে জানানো হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ডের তরফে। বর্তমানে আক্রান্তরা আইসোলেশনে রয়েছে। আপাতত স্থিতিশীল রয়েছে তাদের অবস্থা। চিকিৎসকরা তাদের দেখভাল করছেন। কিন্তু সাত জনের করোনা আক্রান্তের খবর ছড়িয় পড়তেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে বোর্ডের অন্যান্য কর্মীদের মধ্যেও। তবে প্রোটিয়া বোর্ডের তরফ থেকে সকলকে অযথা আতঙ্কিত হতে ও আতঙ্ক ছড়াতে নিষেধ করা হয়েছে।