২০০৭ সালে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম প্রধান সদ্যস্য ছিলেন শ্রীসন্থ। রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে মিসবা উল হকের ক্যাচও জমা পড়েছিল শ্রীসন্থের হাতেই। ২০১১ সালে ক্রিকেট বিশ্বকাপ ফাইনালেও ভারতীয় দলের  সদস্য ছিলেন শ্রীসন্থ। আশিস নেহরার চোট সেই সুযোগ এন দিয়েছিল কেরালা এক্সপ্রেসকে। দেশের দুটি বিশ্বকাপ দলের সদস্য থাকার ফলে আইপিএল নিলামেও ভালই দর উঠেছিল শ্রীসন্থের। কিন্তু সেই আইপিএলএই স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকার অভিযোগ শ্রীসন্থের জীবন থেকে কেড়ে নিয়েছিল ক্রিকেট। সেপ্টেম্বরে শেষ হচ্ছে শ্রীসন্থের ৭ বছরের নির্বাসন। দীর্ঘ বিরতির পর ফর ক্রিকেট ফেরার প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছেন শ্রীসন্থ।

আরও পড়ুনঃবায়ার্নের প্রথম একাদশে জায়গা করে স্বপ্নপূরণ করলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত সরপ্রীত সিং

বিগত কয়েক দিনেই শ্রীসন্থ পরিষ্কার করে দিয়েছে তার আগামী দিনের লক্ষ্য। কেরালার হয়ে রঞ্জি খেলার পাশাপাশি জাতীয় দলে কামব্যাক করতে চান এই ভারতীয় পেসার। একইসঙ্গে ২০২৩ বিশ্বকাপেও খেলার বিষয়েও আশাবাদী বলে জানিয়েছেন শ্রীসন্থ। তবে সব কিছুর আগে শ্রীসন্থ জানিয়েছেন, যে আইপিএল তাকে এক দিন ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছিল। সেই আইপিএলেই ফের ফিরে নিজেকে প্রমাণ করতে চান। প্রয়োজনে আইপিএলের নিলামে উঠতেও রাজি শ্রীসন্থ। আশা করছেন, তাঁর প্রতি উৎসাহ দেখাবে বেশ কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি। আইপিএল-এর নিলামে নিজের দর পরখ করার আগে অবশ্য ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল খেলতে চান।

আরও পড়ুনঃএবার করোনা ভাইরাসের থাবা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বাড়িতে

আরও পড়ুনঃবউদির পর এবার কি করোনা আক্রান্ত সৌরভের দাদা,কী জানাল বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের পরিবার

আইপিএলে খেলার প্রসঙ্গে শ্রীসন্থ জানিয়েছেন,'ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল পারফরম্যান্স করলে নিলামে অবশ্যই নিজের নাম দেব। আশা করি ঘরোয়া টুর্নামেন্টে আমি ভালই খেলব। ফের আইপিএল-এ নামব, আমি নিজেকে সব সময়ে এ কথা বলি। এই আইপিএল থেকেই আমাকে ছুড়ে ফেলে দেওয়া হয়েছিল। সেখানেই ফিরে নিজেকে প্রমাণ করতে চাই। একইসঙ্গে সমালোচকদেরও জবাব দিতে চাই য়ে আমি এখনও ফুরিয়ে যাইনি।'বর্তমানে ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তনের ঘাম ঝড়াচ্ছেন শ্রীসন্থ। মানসিক দিক থেকে আরও দৃঢ় হওয়ার জন্য  বিখ্যাত বাস্কেটবল খেলোয়াড় মাইকেল জর্ডন, কোবি জোন্সদের ট্রেনার টিম গ্রোভারের কাছে অনলাইনে ক্লাস নিচ্ছেন কেরলের পেসার। এককথায় ২২ গজে ফেরার জন্য ছটফট করছেন কেরল এক্সপ্রেস।