অপরাধ কলকাতায় কালী পুজোর উদ্বোধনে আসা। তাও উদ্বোধন করেননি তিনি। উপস্থিত ছিলেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে। আর তাতেই বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানকে কুপিয়ে খুনের হুমকি দিলেন এক যুবক। ফেসবুক লাইভে ধারালো অস্ত্র নিয়ে সাকিবকে টুকরো-টুকরো করে ফেলার হুমকি দিল এক যুবক। সঙ্গে কদর্য ভাষায় গালিগালাজ। এই ঘটনার পর রীতিমত আতঙ্কিত শাকব আল  হাসান ও তার পরিবার। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিস প্রশাসন।

শুক্রবার কাঁকুড়গাছির পরেশ পালের পুজোর উদ্বোধন করতে একদিনের কলকাতা সফরে এসেছিলেন বিশ্ব ক্রিকেটার অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সেই কারণে রবিবার রাতে ফেসবুক লাইভে মহসিন তালুকদার নামে এক যুবক সাকিবকে খুনের হুমকি দেন। লাইভ চলাকালীন ধারাল অস্ত্র নিয়ে সাকিবকে শাসানিও দেন তিনি। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজও করেন মহসিন।  সোমবার ভোরে ফের আরও একটি ফেসবুক লাইভ করেন ওই যুবক। সেখানে জাতির কাছে কালী পুজোর উদ্বোধন করার জন্য সাকিবকে ক্ষমা চেয়ে নিতে বলেন। 

শুধু ফেসবুক লাইভে  হত্যার হুমকি মিলেছে এমনটা নয়। মীরপুরে অনুশীলন করার সময় সমর্থকদের বিদ্রুপের মুখে পড়েন সাকিব আল হাসান। দেওয়া হয় স্লোগানও। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে কোনও উপা না থাকায় ইউটিউবে নিজের চ্যানেলে ক্ষমা চেয়ে নেন সাকিব আল হাসান। তিনি বলেন,'আমি নিজেকে গর্বিত মুসলমান মনে করি। ভুলত্রুটি হবেই। তা নিয়েই চলতে হবে। আমি কোনও ভুল করে থাকলে ক্ষমাপ্রার্থী। আপনাদের মনে কষ্ট দিয়ে থাকলে ক্ষমা চাইছি।' তিনি এও বলেন কলকাতার কালী পুজোর উপস্থিত থাকলেও, উদ্বোধন করেননি। গোটা ঘটনায় পদ্মাপারের আবহ এখন বেশ সরগরম। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস। কিন্তু কালী পুজোর উব্দোধন অনুষ্ঠানে এসে এমন ধর্মান্ধতার শিকার হতে হবে আন্তর্জাতিক তারকা ক্রিকেটারকে, তা বিস্মিত করেছে সকলকেই।