আগামিকাল ছুটি পাচ্ছেন বাংলার 'দাদা' তথা বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। মঙ্গলবার সকালে সৌরভকে দেখার পর ফিট সার্টিফিকেট দিয়ে বিশিষ্ট হৃদরোগের চিকিৎসক দেবী শেঠি। একটু নিয়ন্ত্রিত জীবন যাপন ছাড়া কোনও কিছুতেই অসুবিধে নেই সৌরভের। একটু মসকরার ছলে ডাক্তার দেবী শেঠি জানিয়েছেন প্রয়োজন প্লেনও ওড়াতে পারেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। আর ফিট হতেই ফের শুরু হয় সৌরভের রীজনীতিতে অভিষেক নিয়ে জল্পনা।

বুকে ব্যাথা নিয়ে ২ জানুয়ারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন সৌরভ। জানা যায় তার হার্টে তিনটি ব্লকেজ রয়েছে। একটি স্টেন্ট বসলেও, আগামি দিনে বাকি স্টেন্ট বসানো হবে। মানসিক চাপের কারণেই এই অসুস্থতা সৌরভের বলে জানা গিয়েছে। তাই মঙ্গলবার ফিট সার্টিফিকেট পেলেও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে এই অবস্থায় রাজনীতিতে আসলে সেই চাপ কি নিতে পারবেন 'মহারাজ'। অসুস্থতার আগে বেশ কিছু দিন ধরে শোনা যাচ্ছিল সৌরভের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে জল্পনা। সেই মানসিক চাপের কারণেই এই ঘটনা কিনা সৌরভকে দেখতে এসে প্রশ্ন তুলেছিলেন শিলিগুড়ির মেয়র, তথা সিপিএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য। তৃণমূলের তরফ থেকেও জানিয়ে দেওয়া হয় তারা কোনও চাপ দেননি। ফলে প্রকারন্তরে অভিযোগের আঙুল ওঠে বিজেপির দিকে। যদিও সেই অভিযোগ অস্বীকার করে পদ্ম শিবির।

মঙ্গলবার সৌরভ ফিট ঘোষণার পর 'দাদা' রাজনীতিতে যোগ দিতে পারবেন কিনা সেই প্রশ্ন করা হয়ে ডাক্তার দেবী শেঠিকেও। প্রশ্নের উত্তর তিনি এড়িয়ে গেলেও বলেন,'এবিষয়ে আমি কোনও মন্তব্য করতে চাই না। এটা সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত বিষয়। এই সিদ্ধান্তটা সৌরভ এবং আপনাদের সবার উপরই ছাড়লাম।' ফলে দেবী শেঠি কিছু না বললেও, তিনি যেভাবে সৌরভকে ফিট সার্টিফিকেট দিয়েছে তাতে সৌরভের রাজনীতিতে অভিষেকে হয়তো সমস্যা হবে না। এখন দেখার বিষয় শেষমেষ কি সিদ্ধান্ত নেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।