প্রথম বাঙালি হিসাবে ভারতীয় ক্রিকেটের প্রত্যাবর্তনের অন্যতম কারণ ছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। মাঠের ভিতর তাঁর দাদাগিরি আজও স্মরণীয় বিশ্ব দরবারে। ঠিক তেমনই প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের কামব্যাকটাও কিন্তু একই রকম স্মরণীয় সব ক্রিকেট প্রেমীদের। এবার মাঠের বাইরের ইনিংসেও ফের একবার নিজের দাপট বজায় রাখলেন সিএবি সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ফের একবার কোনও প্রতিদ্বন্দ্বীতা ছাড়াই বাংলা ক্রিকেটের দায়িত্ব নিতে চলেছেন মহারাজ। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় এবার ফের সিএবি রাজ করবেন সৌরভ অ্যান্ড কোং।

শনিবার সিএবিতে ছিল নির্বাচনের মননোয়ন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ। তবে শেষ পর্যন্ত কোনও রকমের মননোয়ম জমা পড়েনি বলে খবর সিএবি সূত্র। পালটা শনিবার রাত্রে সিএবি থেকে বেড়ানোর সময় মহারাজকে নির্বাচনের বিষয় জিজ্ঞাসা করলে সৌরভ বলেন, জানিনা নির্বাচন হবে কি না। যদি কেউ ভোটে দাঁড়ায় তাহলে হবে। না হলে কি করে হবে।

তবে সূত্রের খবর বিরোধি গোষ্ঠীতে প্রধান মুখ বিশ্বরূপ দে থাকলেও কোনও রকম প্রতিদ্বন্দ্বীতায় যেতে নারাজ বিশ্বরূপরা। আর সেই কারণেই মূলত এবার নির্বাচন ছাড়াই ফের একবার সিএবি-র দায়িত্বে চলে আসছেন সৌরভ গোষ্ঠী। তবে নির্বাচন না হলেও নতুন পদের ক্ষেত্রে বেশ কিছু পরিবর্তন এসেছে সিএবিতে। যেমন নয়া কোষাধ্যক্ষ হিসাবে নরেশ ওঝার নাম আগে উঠে এলেও, এবারের কোষাধ্যক্ষর দায়িত্ব পাচ্ছেন সৌরভের কাকা দেবাশিস গঙ্গোপাধ্য়ায়। পাশাপাশি সৌরভের দাদা শ্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্যায়কে রাখা হয়েছে ওয়ার্কিং কমিটি সদস্য হিসাবে। মূলত গঙ্গোপাধ্যায় পরিবার থেকে এবার সিএবিতে ঢুকে পড়লেন তিন সদস্য। একই সঙ্গে সিএবির সহ-সভাপতি পদে বসতে চলেছেন নরেশ ওঝা। সচিব পদে বসবেন অভিষেক ডালমিয়া ও যুগ্ম সচিবের পদ পেতে পারেন দেবব্রত দাস। আগামী ২৮ অক্টোবর অর্থাত মহালয়ার দিন এই কমিটির হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়া হতে পারে সিএবির।