বোর্ড সভাপতির আসনে বসে সবার প্রথম যে সিদ্ধান্তটা নিয়েছিলেন সৌরভ সেটা সুপার হিট। হাতে সময় খুব কম ছিল। তার মধ্যেই দেশের মাঠে প্রথম দিন রাতের টেস্ট আয়োজনের রাস্তায় হেঁটেছিলেন মহারাজ। বিরাটদের যেমন রাজি করিয়েছিলেন, তেমনই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকেও পিঙ্ক বল টেস্টের জন্য রাজি করিয়েছিলেন মহারাজ। তাঁর আমন্ত্রণেই শুক্রবার ইডেনে উপস্থিত হয়েছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি নিজেই জানিয়েছিলেন, সৌরভের ডাকে সারা দিয়েই তাঁর কলকাতায় আসা। প্রথম পিঙ্ক বল টেস্টের জন্য সৌরভ যাঁদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন তাঁরা সবাই প্রায় এসেছেন। দিন রাতের টেস্টকে ক্রিকেট উত্সবে পরিনতা করেছিলেন সৌরভ। সেই পরিকল্পনা সুপার হিট। তাই ভারত- বাংলাদেশ পিঙ্ক বল টেস্টের দ্বিতীয় দিন বেশ খোস মেজাজে বোর্ড সভাপতি। 

আরও পড়ুন - দিন-রাতের টেস্ট নিয়ে সৌরভকে নতুন প্রস্তাব ওয়ার্নের, রাজি হবেন কি মহারাজ

কলকাতা ছেড়ে যাওয়ার আগে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৌরভের থেকে একটা প্রমিস আদায় করে নিয়েছেন। আগামী বছর বঙ্গবন্ধু মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ। সেই উপলক্ষ্যে বাংলাদেশে এশিয়া একাদশ ও বিশ্ব একাদশের দুটি প্রদর্শনী টি-২০ ম্যাচ হবে। সঙ্গে হবে একাধিক অনুষ্ঠানও। সেখানেই সৌরভকে আমন্ত্রণ জানিয়েছন শেখ হাসিনা। সৌরভ জানিয়েছেন তিনি যাবেন সেই অনুষ্ঠানে। 

আরও পড়ুন - পিঙ্ক বলে প্রথম শতরান, ইডেনে পন্টিংকে পিছনে ফেলে নতুন রেকর্ড বিরাটের

পিঙ্ক বল টেস্টের সফল আয়োজন করে তৃপ্ত মহারাজ। কিন্তু শুক্রবার তাঁকে খুব বেশি সংবাদমাধ্যম বা টিভি ক্যামেরারা সামনে দেখা যায়নি। একটু কী চাপে ছিলেন ? সৌরভ বলছেন একেবারেই না। তিনি খুবই ব্যস্ত ছিলেন। তাই সংবাদ মাধ্যমের সামনে আসতে পারেননি বা সম্প্রচারকারী চ্যানেলের হয়েও যে অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা ছিল সেটাতেও উপস্থিত হতে পারেননি। ম্যাচের দ্বিতীয় দিন বিরাটের শতরান দেখেছেন সৌরভ। মহারাজ বলছেন ও রান মেশিন। পিঙ্ক বল নিয়ে সৌরভ উপলব্ধি লাল বলের থেকে বেশি ভাল দেখা যাচ্ছে গোলাপি বল।

আরও পড়ুন - মানসিক সমস্যা কাটিয়ে ক্রিকেটে ফিরলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, নিলেন দুটি উইকেট