করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে খুব একটা সাড়ম্বরে এবছর জন্মদিন পালন করেননি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তারপরও সকাল থেকেই শুভেচ্ছার জোয়ারে ভেসেছেন বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট। রাজ্য জুড়ে পালিত হয়েছে তার জন্মদিন। সারা দিনটা ঠিকই কাটছিল। কিন্তু জন্মদিনে এক বাংলা দৈনিক দেওয়া সাক্ষাৎকারে সৌরভ পত্নী ডোনা গঙ্গোপাধ্যায় উস্কে দিলেন এক বিশাল বড় জল্পনা। খুব শীঘ্রই কী রাজনীতিতে আসতে চলেছেন বাংলার মহারাজ। ডোনার বক্তব্য কিন্তু হাওয়াতে সেই নৌকা ভাসিয়ে দিল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

আরও পড়ুনঃসৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের জন্মদিনে ফিরে দেখা ২২ গজে তার 'দাদাগিরি'

আরও পড়ুনঃসৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায়ের জন্মদিনে আবেগঘন শুভেচ্ছা বার্তা সচিন তেন্ডুলকরের

সৌরভের জন্মদিনের দিন ডোনা গঙ্গোপাধ্যায় বক্তব্য রাজ্য রাজনীতিতে নতুন আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। জন্মদিনে এক বাংলা দৈনিক সাক্ষাৎকারে নেন ডোনা গঙ্গোপাধ্যায়ের। সাংবাদিক প্রশ্ন করেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের রাজনীতিতে আসার জল্পনা নিয়ে। সেই প্রশ্নের উত্তরে ডোনা বলেন,'সৌরভ যদি রাজনীতির জগতে পা দেন, তবে সেখানেও শীর্ষে পৌঁছবেন তিনি। সৌরভ এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা নেই। তবে যে পিচেই খেলুক না কেন, ও সেরা হয়। একেবারে প্রাথমিক স্তর থেকে শুরু করলেও শীর্ষে পৌঁছয় একদিন। যদি রাজনীতিতে যোগ দেয়, তবে আশা করছি সেখানেও শীর্ষে পৌঁছবে।'  যদিও ডোনা স্পষ্ট করে জানালেন না যে, মহারাজের এখনই রাজনীতির আঙিনায় পা দেওয়ার সম্ভাবনা কতটা। 

আরও পড়ুনঃবর্তমানে বিশ্বের সব থেকে 'সেক্সিয়েস্ট অ্যাথলিট', জানুন আলিশা স্মিডের কাহিনি

স্বামীর ব্যক্তিগতে কাজে খুব একটা নাক গলান না ডোনা গঙ্গোপাধ্যায়। অত্যন্ত আজ পর্যন্ত তা নজরে আসেনি সংবাদ মাধ্যমের। ক্রিকেটর ২২ গজ থকে ক্রিকেট প্রশাসক সব সময়ই ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের উপর জোর দিয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। কিন্তু হঠাৎ করেই জন্মদিনের দিনই কেনও এই মন্তব্য করলেন ডোনা, তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। কেন্দ্রে বিজেপি সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক বরাবরই ভাল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের। শোনা যায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের হস্তক্ষেপেই রাতারাতি বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। আবার বাংলায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের সঙ্গেও তার দিদি-ভাইয়ের সঙ্গে। কিন্তু সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে সংসদীয় রাজনীতিতে সক্রিয় করে তোলার চেষ্টা অনেক দিন থেকে করে চলেছে বিজেপি। গুঞ্জন শোনা যায়,  ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্য বিজেপির মুখ হয়ে উঠতে পারেন সৌরভ। তাহলে কী এবার সত্যি হতে চলেছে সেই জল্পনা। রাজনীতির আঙিনাতেও দেখা যাবে দাদাগিরি।