সোমবার থেকে শুরু হল ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া তিন ম্য়াচের একদিনের সিরিজ। ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে খেলা সবসময়ই উত্তেজক, আর তার মধ্যে ম্যাচটি হচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেটের মক্কা মুম্বইয়ের ওয়াঙ্খেড়ে স্টেডিয়ামে। ফলে এদিন, প্রচুর লোকের সমাগম হয়েছিল মাঠে। কিন্তু বৈধ টিকিট হাতে এক তরুণ স্টেডিয়ামে ঢুকতে যেতেই আটকালো নিরাপত্তাকর্মী। কারণ সে কালো টিশার্ট পরে আছে।

শুধু এই একটি ক্ষেত্রেই নয়, এদিন ওয়াঙ্খেড়েতে এইরকম হেনস্থার শিকার হয়েছেন বহু মানুষ বলে অভিযোগ। শুধু কালো টিশার্টই নয়, কালো টুপি, কালো জ্যাকেট, কালো সোয়োটার - মোটকথা কালো রঙের কিছু পরে আসলেই আটকে দেওয়া হয়েছে গেটে বলে জানিয়েছেন অনেকেই। নিরাপত্তাকর্মীদের সাফ কথা কালো কিছু পরে স্টেডিয়ামে ঢোকা যাবে না। গেটের বাইরে সেই পোশাক খুলে রেখে যেতে হবে।

কিন্তু, কেন হটাৎ কালো পোশাকে আপত্তি? ভুক্তভোগী দর্শকরা জানিয়েছেন, নিরাপত্তাকর্মীরা জানিয়েছেন দেশ জুড়ে এখন সিএএ-এনআরসি ও জেএনইউ কাণ্ডের প্রতিবাদ চলছে। কালো প্রতিবাদের রঙ। তাই খেলার সঙ্গে যাতে রাজনীতি কোনওভাবে মিশে না যায়, তার জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গ্য়ালারি থেকে কোনও প্রতিবাদ যেন না ওঠে তা নিশ্চিত করার জন্য়ই কালোর প্রবেশ নিষেধ। তবে তারপরেও স্টেডিয়ামে প্রতিবাদ হওয়া আটকানো যায়নি। কালো বাতিল সাদা টিশার্ট পরেই সিএএ-এনআরসি-র বিরোধিতা করেন একদল দর্শক।

এদিকে, এরফলে অনেক দর্শকই চরম ভোগান্তির শিকার হন। কারণ, কালো রঙের পোশাক পরে যে মাঠে আসা যাবে না, তাই নিয়ে আগে থেকে কোনও নির্দেশ জারি করেনি এমসিএ। আচমকা এমন সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেওয়া হয়। এমনকী গেটের বাইরে পোশাকগুলি খুলে রাখার কোনও যথাযথ ব্যবস্থা রাখা হয়নি। এমনিই মাটিতে ফেলে রেখে মাঠে ঢুকতে হয়। পোশাক বদলেরও কোনও ঘেরা জায়গা ছিল না।

এদিকে মাঠে এদিন ভারতীয়দের সময়টা ভালো যায়নি। একমাত্র শিখর ধাওয়ান (৭৪) ও লোকেশ রাহুল (৪৭) ছাড়া বাকিরা কেউ বড় রান পাননি। ভারত ৪৯.১ ওভারে ২৫৫ রান তুলে অলআউট হয়ে যায়। ততবে উল্টো দিকে অস্ট্রেলিয়ার বদলে নিউজিল্যান্ড তাকলে ভারত এই ম্য়াচ সহজেই জিতে যেত। কারণ কালো জার্সির কিউইদের তো মাঠে ঢুকতেই দেওয়া হত না, কোহলিরা ওয়াকওবার পেয়ে যেতেন।