এবার খেলার মাঠে ম্যাচ গড়াপেটা নিয়ে সরব হল শ্রীলঙ্কার কেন্দ্রীয় সরকার। শ্রীলঙ্কার সংসদে পাস হয়ে গেল ম্যাচ গড়াপেটার বিরুদ্ধে বিল। শ্রীলঙ্কার সংসদে এই বিল পাস করে খেলাধুলোয় হওয়ায় দুর্নীতিকে রুখতে চাইছে শ্রীলঙ্কার সরকার। খেলার মাঠে সবরকমের দুর্নীতি রুখতে এবার কড়া পদক্ষেপ নিয়ে ফেললো শ্রীলঙ্কা সরকার। এক ধাক্কায় ১০ বছরের জেলও হতে পারে এমনটাই বলা হয়েছে এই বিলে। মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কার সংসদে পাস হয়ে প্রিভেনশন অফ অফেন্সেস রিলেটেড টু স্পোর্টস বিল।

আরও পড়ুন, আইসিসি ব়্যাঙ্কিংয়ে প্রথম স্থান ধরে রাখলেন বিরাট ও বুমরা

শ্রীলঙ্কার ক্রীড়া মন্ত্রী আগেই এই বিল তৈরি করার জন্য দুর্নীতি দমন শাখার সঙ্গে আলাদা করে বৈঠক করেছিল। একই সঙ্গে এই বিষয় নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই চলছিল জল্পনা। তবে অবশেষে এই দ্বীপরাষ্ট্রের ক্রীড়া মন্ত্রী হারিন ফার্নান্দো সংসদে পেশ করেন এই বিল। আর সেই সঙ্গেই এই বিল পাস করতে সংসদে তাঁকে সমর্থন করেন বর্তমান শ্রীলঙ্কা সাংসদ ও প্রাক্তন শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটার অর্জুন রণতুঙ্গা। তাঁর সঙ্গে জোর সমর্থন দিয়ে সংসদে এই বিল পাস করে ফেলেন ক্রীড়া মন্ত্রী ফার্নান্দো। ম্যাচ গড়াপেটা, খেলায় বেটিং ও কোনও রকমের দুর্নীতি করলেই এবার শ্রীলঙ্কার সরকারের তরফ থেকে তাঁদের শাস্তি দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে এই বিলে।

আরও পড়ুন, প্রথম ভারতীয় হিসেবে আন্তর্জাতিক টি-২০ হ্যাটট্রিক দীপকের, তথ্য বলছে অন্য কথা

বিলের নতুন আইন অনুযায়ী, বিলের নামকরণ করা হয়েছে, প্রিভেনশন অফ অফেন্সেস রিলেটেড টু স্পোর্টস। একই সঙ্গে খেলা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে এই বিলে বলা হয়েছে, কোনও ব্য়ক্তি যদি খেলার সঙ্গে জড়িয়ে কোনও রকমের দুর্নীতি করেন তাহলে সেই খেলোয়াড়কে ১০ বছর পর্যন্ত জেল হেফাজত দেওয়া হতে পারে। একই সঙ্গে  ৫০ হাজার থেকে ৫ লক্ষ্য ডলারের জরিমানাও দিতে পারে সেই খেলোয়াড়কে। এই বিষয় নিয়ে কড়া ভাবে সরব হয়েছে শ্রীলঙ্কার সরকার। এবার কোনও রকমের দুর্নীতি করার আগে বেশ কিছু বার ভাবতে হবে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটার সহ বাকি খেলোয়াড়দের।