ওয়ান ডে সিরিজের হারের ধাক্কা কাটিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টি২০ সিরিজে ঘুড়ে দাঁড়াল টিম ইন্ডিয়া। তিন ম্যাচের টি২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচে অ্যারন ফিঞ্চের দলকে ১১ রানে হারাল বিরাট কোহলির দল। এদিন ক্য়ানেবেরায় প্রথম ব্যাট করে ১৬১ রান করে  মেন ইন ব্লুরা। ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ৫১ রানের ইনিংস খেলেন কেএল রাহুল। একইসঙ্গে ২৩ বলে ৪৪ রানের ইনিংস খেলেন রবীন্দ্র জাদেজা। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সর্বোচ্চ তিন উইকেট নেন মোসেস হেনরিকস। রান তাড়া করতে নেমে ব্যাগি গ্রিনদের ইনিংস শেষ হয় ১৫০ রানে। ভারতের হয়ে ৩টি করে উইকেট নেন যুজবেন্দ্র চাহল ও টি নটরাজন। একটি উইকেট পান দীপক চাহর।

এদিন টসে জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। ভারতের হয়ে ওপেন করতে নামেন শিখর ধওয়ান ও কেএল রাহুল। কিন্তু এদিন ব্য়াট হাতে কেএল রাহুল বাদে ভারতের ওপরের সারির সব ব্যাটসম্যানরাই নিরাশ করেন। মাত্র ১ রান করে স্টার্কের শিকার হন শিখর ধওয়ান। ৯ রান করে সুইপসনের বলে আউট হন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। সঞ্জু স্যামসন কিছুটা লড়াই করলেও ২৩ রান করে মোসেস হেনরিকসের বলে আউট হন তিনি। মাত্র ২ রান করে অ্যাডাম জাম্পার বলে আউট হন মণীশ পাণ্ডে। অপরদিক নিজের দুরন্ত ফর্ম চালিয়ে যান কেএল রাহুল। অবনদ্য ৫১ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। বেশ কয়েকটি আক্রমণাত্বক শটও খেলেন ভারতীয় ব্যাটিং তারকা।  ৫টি চার ও একটি ছয়ে সাজানো তার ইনিংস। শেষে মোসেস হেনরিকসের বলে আউট হন তিনি। ওডিআই সিরিজে দুরন্ত ব্যাট করলেও, এদিন ব্যর্থ হার্দিক পান্ডিয়া। ১৬ করে হেনরিকসের বলে আউট হন তিনি। শেষে রবীন্দ্র জাদেজা ফের ভারতীয় দলের ইনিংস টেনে নিয়ে যান। জাদেজা শেষে সঙ্গ  দিলেও মাত্র ৭ রান করে স্টার্কের বলে আউট হন ওয়াশিংটন সুন্দর। অপরদিকে ২৩ বলে ৪৪ রানের ঝড়ো অপাজিত ইনিংস খেলেন রবীন্দ্র জাদেজা। ২০ ওভার শেষে ভারতের স্কোর দাঁড়ায় ১৬১ রানে ৭ উইকেট। 

১৬২ রানের শুরুটা ভালোই করে অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ও ডার্সি শর্ট। উইকেট বাঁচিয়ে পার্টনারশিপ গড়ার চেষ্টা করেন দুই তারকা। তারা সফলও হন। প্রথম উইকেট ৫৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন ফিঞ্চি ও ডার্সি শর্ট জুটি। অষ্টম ওভারে প্রথম উইকেট পড়ে অজিদের। যুজবেন্দ্র চাহলের বলে ৩৫ রান করে আউট হন ফিঞ্চ। দ্বিতীয় উইকেট পেতে বেশি অপো করতে হয়নি ভারতীয় দলকে। দশম ওভারে দলের ৭২ রানের মাথায় দ্বিতীয় উইকেট পড়ে অস্ট্রেলিয়ার। ১২ করে চাহলের শিকার হন স্টিভ স্মিথ। ব্যাট হাতে এদিন সফল হতে পারেননি গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। মাত্র ২ রান করে টি নটরাজনের বলে আউট হন তিনি। এরপর হেনরিকস ও শর্ট ৩৮ রানের পার্টনারশিপ করেন। কিন্তু ১৫ তম ওভারে ৩৪ রান করে নটরাজনের বলে আউট হন তিনি। এরপর ৭ রান করে চাহলের বলে আউট হন ম্যাথু ওয়েড। লড়াই করার চেষ্টা করলেও, ৩০ রান করে দীপক চাহরের বলে আউট হন মোসেস হেনরিকস। এরপর ১ রান করেই নটরাজনের বলে আউট হন মিচেল স্টার্ক। অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস শেষে হয় ১৫০ রানে। ১১ রানে ম্যাচ জিতে নেয় কোহলি ব্রিগেড। এই জয়ের ফলে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল টিম ইন্ডিয়া।