সোমবার বাংলাদেশের সাথে শেফালী ভার্মাকে ভয়ডরহীন ভাবে ব্যাটিং করার পরামর্শ দেয় ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। সেই পরামর্শ মেনেই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিধ্বংসী একটি ইনিংস খেলেন শেফালী ভার্মা। মূলত তার সেই প্রথম ইনিংসে তার সেই ঝোড়ো ব্যাটিংয়ের সৌজন্যেই ম্যাচ জিততে পারে ভারত। 

১৬ বছর বয়সী শেফালীর বিক্রম দেখে মুগ্ধ সকলে। মাত্র ১৭ বল খেলে ৩৯ রান করে যান তিনি। তার ইনিংসের দৌলতেই ভারত শেষপর্যন্ত ১৪২ রানে পৌঁছতে পারে। জবাবে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের মাত্র ১২৪ রানের মধ্যে আটকে রাখে ভারতের বোলাররা। ১৬ বছর বয়সী ভার্মার সাথে ১৯ বছর বয়সী জেমিনা রড্রিগেজের ব্যাটিংও নজর কেড়েছে সকলের। সাবধানী সতর্কভাবে ব্যাটিং করে ৩৪ বলে ৩৭ রান করেন তিনি। ভারতীয় দল আশাবাদী যে অস্ট্রেলিয়ায় আবারও তাদের দুজনের ব্যাটের ঝলক দেখবে সারা বিশ্ব। 

সিনিয়র ক্রিকেটার শিখা পান্ডে জানিয়েছেন যে ভার্মাকে তার স্বাভাবিক খেলার পরিবর্তন করতে নিষেধ করেন তারা। তাকে একইরকম ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতে বলেন সকলে। তার ফলও পাওয়া গিয়েছে হাতেনাতে।  পান্ডে আরও জানিয়েছেন ১৬ বছর বয়সী একটা মেয়ের এমন প্রতিভা দেখে উচ্ছসিত তিনি। তিনি নিজে ১৬ বছর বয়সে ক্রিকেট খেলায় শুরু করেননি জানিয়েছেন ৩০ বছর বয়সী ক্রিকেটার। পরে তিনি বলেছেন বোর্ডে ওই রান ওঠার পর তারা সকলেই আত্মবিশ্বাসী ছিলেন যে ম্যাচ জিততে পারবেন। তিনি নিজেও দারুন বোলিং করেছেন। চার ওভারে অত্যন্ত কৃপণ বোলিং করে মাত্র ১৪ রান দিয়েছেন তিনি। সঙ্গে নিয়েছেন ২ উইকেট।