করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমেছে গোটা দেশ। প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেশ জুড়ে চলছে ২১ দিনের লকডাউন। লকডাউনকে সফল করার জন্য প্রাণপণ লড়াই করছেন দেশের প্রসাসনিক কর্তা ব্যক্তি থেকে পুলিস আধিকারিকরা। প্রধানমন্ত্রী ও রাজ্যসরকারগুলির ত্রাণ তহবিলে অনুদান দিচ্ছেন সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশিষ্ট আধিকারিকরা। দেশের যে কটি রাজ্যের অবস্থা খবুই উদ্বেগজনক তার মধ্যে রয়েছে দিল্লিও। সংক্রমণ রুখতে  ও পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে দিনরাত এক করে কাজ করছে দিল্লি পুলিস। ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি  ও পেস বোলার ইশান্ত শর্মা লকডাউন চলাকালীন দিল্লি পুলিস যেভাবে কাজ করেছে তার প্রশংসা করেছেন। বিরাট ও ইশান্তের ভিডিও বার্তা দিল্লি পুলিসের পক্ষ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন। বিরাট ও ইশান্ত ছাড়াও একাধিক ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব দিল্লি পুলিসের ভূমিকার প্রশংসা করেছেন। 

আরও পড়ুনঃলকডাউনে মোবাইল নেটওয়ার্ক পেতে রোজ মগডালে উঠছেন আইসিসির আম্পায়ার

আরও পড়ুনঃলিভারপুলের কিংবদন্তী কেনি ডালগ্লিশ করোনায় আক্রান্ত, চিকিৎসাধীন হাসপাতালে

শুধু প্রশাসনিক কাজ নয়, দুঃস্থদের কাছে খাওয়ার পৌছে দেওয়ার জন্যও দিল্লি পুলিসের ভূমিকাকে কুর্ণিশ জানিয়েছেন বিরাট কোবলি। কোহলি সেই ভিডিও বার্তায় বলেন, "গোটা দেশে এই কঠিন সময়ে যে ভাবে পুলিশ তাঁদের কাজ করে চলেছে তা মন ছুঁয়ে যাচ্ছে।দিল্লি পুলিশের কৃতিত্বকে মেনে নিতে হবে, তাঁরা শুধু যে তাঁদের কাজ করছেন তা নয় সততার সঙ্গে করছেন। এ ছাড়া গরীবদের জন্য খাওয়ার ব্যবস্থা করছে প্রতিদিন। এটাই সব থেকে বড় প্রাপ্তি।দারুণ এবং করে যান।"

 

 

ইশান্ত মানুষের কাছে আর্জি জানিয়েছেন, ঘরে থাকার এবং নিজের সঙ্গে সঙ্গে পরিবারের খেয়াল রাখার এবং একইসঙ্গে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দেশবাসীকে একসঙ্গে লড়াইয়ের বার্তাও দিয়েছেন ইশান্ত শর্মা।তিনি বলেন, ‘‘দিল্লি পুলিশের জওয়ানরা তাদের কর্তব্য করছেন দিন-রাত তাই আমাদেরও এগিয়ে আসতে হবে তাদের সাহায্য করার জন্য এই লকডাউনের সময় ঘরে থেকে এবং সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ হল ফেক খবরে বিশ্বাস না করা।'' তিনি এর সঙ্গে জুড়ে দেন, ‘‘এই লড়াইয়ে, আমরা একসঙ্গে জিতব।''

 

 

দিল্লি পুলিশের কাজের প্রশংসা করেছেন অ্যাথলিট অঞ্জু ববি জর্জ। পরিস্থিতি মোকাবিলায় দিল্লি পুলিসকে সাহায্যের আর্জিও জানিয়েছেন তিনি। পুলিস আমাদের জীবন বাঁচানোর চেষ্টা করছে বলেও জানিয়েছেন অঞ্জু ববি জর্জ।

 

 

দিল্লি পুলিসকে সহযোগিতার কথা বলেছেন ব্য়াডমিন্টন তারকা জোয়ালাা গাট্টাও। করোনাকে হারানোর জন্য লকডাউনের নিয়ম মেনে চলার জন্য অনুরোধও করেছেন জোয়ালা গাট্টা।

 

 

দিল্লি পুলিসের ভূমিকার প্রশংসসা করেছেন অলিম্পিকে পদক জয়ী অভনব বিন্দ্রা। সাধারণ মানুষকে পুলিস-প্রশাসনের পাশে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

Padma Bhushan,Khel Ratna Awardee & Olympic Gold Medalist @Abhinav_Bindra joins Delhi Police in this fight against #COVID19

Listen to what India's pride had to say about supporting the efforts of our brave personnel@PMOIndia @HMOIndia@LtGovDelhi @CPDelhi#DelhiPoliceFightsCOVID pic.twitter.com/478j275J8S

— Delhi Police (@DelhiPolice) April 11, 2020

 

বিরাট কোহলির কোচ রাজ কুমার শর্মার বক্তব্যও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছে দিল্লি পুলিস। ভিডিও বার্তায় তিনিও দিল্লি তথা পুরো দেশের পুলিসকে পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। একইঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবিলায় সকলকে একসঙ্গে লড়াইয়ের আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

 

 

করোনা ভাইরাস মহামারীর জেরে দেশ জুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা ৮ হাজার ছাড়িয়েছে। বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। করোনা ভাইরাসকে হারানোর জন্য সামাজিক দূরত্বই যে একমাত্র পথ তা বারবার বলেছে বিশেষজ্ঞরা। আগামি দিনে করোনা মুক্ত ভারত গড়তে হলে লকডাউন মেনে চলার অনুরোধ করা ক্রীড়া ব্য়ক্তিত্ব ও পুলিস ও প্রশাসনিক আধিকারিকদের তরফে।