জেনে নিন বিজয়া দশমীতে, মায়ের বিসর্জনের সঠিক পদ্ধতি ও নিয়ম

| Oct 05 2022, 12:35 PM IST

জেনে নিন বিজয়া দশমীতে, মায়ের বিসর্জনের সঠিক পদ্ধতি ও নিয়ম
জেনে নিন বিজয়া দশমীতে, মায়ের বিসর্জনের সঠিক পদ্ধতি ও নিয়ম
Share this Article
  • FB
  • TW
  • Linkdin
  • Email

সংক্ষিপ্ত

শারদীয়ার উৎসব সারা দেশে ৯ দিন ধরে পালিত হয় এবং তারপরে শেষ দিনে মাকে আড়ম্বর সহকারে মাকে বিদায় দেওয়া হয়। আসুন জেনে নেই দুর্গা বিসর্জনের সময় ও পদ্ধতি।
 

৫ অক্টোবর ২০২২-এ দেবী দুর্গা তার বাড়িতে ফিরে আসবেন। মা দুর্গার প্রতিমা বিসর্জন করা হয় আশ্বিন মাসের দশম দিনে অর্থাৎ দশেরার (বিজয়াদশমী) দিনে। নয় দিন ধরে মা দুর্গা মহিষাসুরের সঙ্গে যুদ্ধ করেছিলেন এবং দশমীতে তাঁকে বধ করে জয়লাভ করেছিলেন। শারদীয়ার উৎসব সারা দেশে ৯ দিন ধরে পালিত হয় এবং তারপরে শেষ দিনে মাকে আড়ম্বর সহকারে মাকে বিদায় দেওয়া হয়। আসুন জেনে নেই দুর্গা বিসর্জনের সময় ও পদ্ধতি।

দুর্গা বিসর্জন ২০২২ মুহুর্ত

Subscribe to get breaking news alerts

হিন্দু ক্যালেন্ডার অনুসারে, আশ্বিন মাসের দশমী তিথি ৪ অক্টোবর ২০২২ দুপুর ০২:২০ মিনিট থেকে শুরু হচ্ছে এবং পরের দিন ৫ অক্টোবর ২০২২-এ দুপুর ১২টায় শেষ হবে। এ বছর দশমী তিথি ১২টার পর শেষ হচ্ছে বলে সকালেই দেবী দুর্গার বিসর্জন হবে।

দুর্গা বিসর্জন মুহুর্তা - সকাল ০৬.২১ - ০৮.৪৩ am (৫ অক্টোবর ২০২২)
সময় কাল - ২ ঘন্টা ২২ মিনিট

মা দুর্গার বিসর্জনের পদ্ধতি-
বিসর্জনের আগে দেবীকে সিঁদুর, আবির, হলুদ, ধান, লাল ফুল, লাল-হলুদ সুতো নিবেদন করুন। সেই সঙ্গে শোদোপচার দিয়েও জাওয়ারের পুজো করুন। মনে রাখবেন, অখন্ড জ্যোতি নিজে নিভিয়ে দেবেন না।
মায়ের আরতি করুন, ফল ও মিষ্টি নিবেদন করুন। ঘটস্থাপনের সময়, একটি মাটির পাত্রে বপন করা কিছু বীজ বের করে পরিবারের গুরুজনদের দিয়ে দিন এবং বিজয়াদশমীর শুভেচ্ছা জানান। কথিত আছে যে এই গহনাগুলিকে সম্পদের জায়গায় রাখলে দেবী লক্ষ্মীর অধিবাস হয়। টাকা ও শস্যের মজুদ ভরে গিয়েছে।
ঘটস্থাপন ঘটের জল সারা ঘরে ছিটিয়ে একটি পাত্রে রাখুন। মনে রাখতে হবে জল এখানে-ওখানে ছুঁড়েছে। এতে মা দুর্গার রাগ হবে।

আরও পড়ুন- দেবীপক্ষের নবমী তিথি কোনও রাশির উপর কেমন প্রভাব ফেলবে, দেখে নিন আপনার আজকের রাশিফল

আরও পড়ুন- দুর্গাপুজার শেষ সপ্তাহ কোনও রাশির কেমন কাটবে, জেনে নিন ১২ রাশির সাপ্তাহিক রাশিফল

আরও পড়ুন- আলতা মহিলাদের সজ্জার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ, পরতে গিয়ে এই ভুল করলেই হতে পারে স্বামীর সর্বনাশ
বিসর্জনের জন্য ঢোল, পুজোর অবশিষ্ট ফুল ও পুজোর ঘট-সহ দেবীর মূর্তি নিয়ে যান। আবার ঘাটের পাশে নদী-পুকুরে দেবীর আরতি করুন এবং ভুল-ত্রুটির জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করুন এবং তাঁর কৃপা চিরকাল বজায় রাখুন।
এখন 'গচ্ছ গচ্ছ সুরশ্রেষ্ঠে স্থানম পরমেশ্বরী। পূজারধনকালে চ পুনর্গমনায় চ।।' মন্ত্র পাঠ করার সময় শ্রদ্ধার সঙ্গে মায়ের প্রতিমা নদীতে বিসর্জন দিন।
গহনার পাশাপাশি মাকে সামগ্রী নিবেদন করুন, যজ্ঞের ভস্মও নদীতে বিসর্জন দিন। ঘটস্থাপনের সময় ঘটের উপর রাখা নারকেলও বিসর্জন দিতে হবে।

Read more Articles on