ভগবান গণেশের মাথা এখনও সংরক্ষিত আছে উত্তরাখন্ডের এই গুহায়, জেনে নিন এর রহস্য

| Sep 28 2022, 11:05 AM IST

ভগবান গণেশের মাথা এখনও সংরক্ষিত আছে উত্তরাখন্ডের এই গুহায়, জেনে নিন এর রহস্য

সংক্ষিপ্ত

এই গুহাটি পিথোরাগড় জেলার গাঙ্গোলিহাট থেকে ১৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। ভগবান শিব এবং গণেশের অনেক পৌরাণিক কাহিনী এই গুহার সঙ্গে জড়িত। পাতাল ভুবনেশ্বর গুহা ১৬০ মিটার দীর্ঘ এবং ৯০ মিটার গভীর। 
 

পুরাণ অনুসারে, আমরা সবাই জানি যে ভগবান শিব ক্রোধে ভগবান গণেশের মাথা কেটে ফেলেছিলেন এবং মা পার্বতীর অনুরোধে ভগবান শিব একটি হাতির মুখ ভগবান গণেশের মুখের উপর রেখেছিলেন। এবং এর পরে তাদের মধ্যে পুনরায় জীবন দান করা হয়েছিল। কিন্তু জানেন কি গণেশের মাথা কেটে ফেলার সময় তা কোথায় পড়েছিল? উত্তরাখণ্ডের পিথোরাগড়ের পাতাল ভুবনেশ্বর গুহায় এর উত্তর পাওয়া যায়। পুরাণ অনুসারে, উত্তরাখণ্ডের পাতাল ভুবনেশ্বর গুহায় ভগবান গণেশের মাথা পড়েছিল। আর এই মাথাটি এখনও গুহায় রয়েছে। আসুন জেনে নিই এই রহস্যের সত্যতা। 

এখানে রয়েছে পাতাল ভুবনেশ্বর গুহা-
পুরাণেও এই গুহার উল্লেখ পাওয়া যায়। যখন শিব ক্রোধে ভগবান গণেশের মাথা কেটে ফেলেন, তখন তিনি উত্তরাখণ্ডের পিথোরাগড় অবস্থিত পাতাল ভুবনেশ্বর গুহায় পড়ে যায়। এই গুহাটি পিথোরাগড় জেলার গাঙ্গোলিহাট থেকে ১৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। ভগবান শিব এবং গণেশের অনেক পৌরাণিক কাহিনী এই গুহার সঙ্গে জড়িত। পাতাল ভুবনেশ্বর গুহা ১৬০ মিটার দীর্ঘ এবং ৯০ মিটার গভীর। 

Subscribe to get breaking news alerts

শোনা যায়, আজও ভগবান শিব এই গুহায় বসে আছেন। এছাড়াও, ভগবান গণেশের ছিন্ন মস্তকও এখানে রয়েছে। প্রতি বছর লক্ষ লক্ষ দর্শনার্থী এখানে ভগবান শিব এবং ভগবান গণেশের ছিন্ন মস্তক দর্শণে আসেন। 

আরও পড়ুন- দুর্গাপুজা ও তার পরবর্তী সময় এই ৫ রাশির জন্য খুব চাপের হতে পারে, দেখে কোন রাশি আছে এই

আরও পড়ুন- দুর্গাপুজোর সময় থেকে বাকি বছরটা এই ৪ রাশির জন্য অত্যন্ত শুভ, জেনে নিন কারা আছেন 

আরও পড়ুন- এই বছর মা দুর্গার আগমণ হবে 'হাতিতে' চড়ে, জেনে নিন মায়ের প্রতিটি বাহনের গুরুত্ব

পাতাল ভুবনেশ্বর গুহার শুরু কোথায়-
স্কন্দপুরাণে পাতাল ভুবনেশ্বরের উল্লেখ আছে। এই গুহায় গণেশের মাথা পড়েছিল বলে পুরাণে উল্লেখ আছে। এছাড়াও, এটিও বলা হয় যে ভগবান শিব নিজ হাতে এই গুহাতেই গণেশের আসল মাথাটি সংরক্ষণ করেছিলেন। এই গুহায় ভগবান গণেশের মাথাটি একটি পাথরের আকারে রয়েছে। এই পাথরে ১০৮টি পাপড়ি বিশিষ্ট ব্রহ্মা কমল তৈরি করা হয়েছে, যেখান থেকে অমৃতের ফোঁটা বের হয়ে ভগবান গণেশের মাথায় পড়ে। ব্রহ্ম কমল সম্পর্কে একটি বিশ্বাস আছে যে এটি ভগবান শিব দ্বারা প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। 

Read more Articles on
null