দিল্লিতে বিজেপি সদর দফতরে মহা স্বাগতম জানানোর জন্য প্রস্তুত বিজেপি কর্মীরা। রীতিমতো জনজোয়াড় বসেছে সেই বিজয়মঞ্চের সামনে। ইতিমধ্যে একক সংখ্যা গরিষ্ঠতায় ম্যাজিক ফিগার ছাড়িয়ে গিয়েছে বিজেপি। সেই উচ্ছসিত জনসমুদ্রের মধ্যে উপস্থিত হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ এদিন বলেন স্বাধীনতার পরে সবচেয়ে ঐতিহাসিক বিজয় এবারের লোকসভা নির্বাচনে গেরুয়া বাহিনীর জয়। এর জন্য তিনি দেশের ১০০ কোটি মানুষকে ধন্য়বাদ জানান। 

কোন রাজ্যে কেমন ফলাফল হচ্ছে এই নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বাংলার প্রসঙ্গ টানেন অমিত শাহ। প্রথমেই দৃপ্ত কন্ঠে টানা পাঁচ বার গর্জে উঠে বলেন, "বঙ্গাল মে... বঙ্গাল মে.... বঙ্গাল মে... বঙ্গাল মে... বঙ্গাল মে"। এর পরেই  "ভারত মাতা কি জয়" রব তোলেন তিনি। এসব বলে জনতার দিকে তাকিয়ে তিনি অথর্পূর্ণ হাসিও হাসেন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে জনতার মোদী রব যেন আরও প্রকট হয়ে ওঠে। 

এবারে বাংলায় তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি ছিল, ৪২ টি আসনই তারা জিতবে। এই প্রসঙ্গে শাহ বলেন, বাংলায় এত অত্যাচার, এত রিগিং হওয়া সত্ত্বেও বিজেপি ১৮ টি আসনে জয়ী হয়েছে। 

তবে শুধু বাংলা নয়। এদিন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুকেও কটাক্ষ করেন। তিনি বলেন, এক্সিট পোলের ফলাফল ভুল এবং ইভিএম কারচুপির অভিযোগ নিয়ে ২১ টি রাজনৈতিক দল দিল্লি মাথায় উঠিয়েছিল। বিশেষ করে চন্দ্রবাবু নাইডু যদি এতটা পরিশ্রম আগে করতেন, তাহলে হয়তো আপনার খাতা খুলত। 

এদিন জনসমুদ্রের মাঝে অমিত শাহ বলেন, এই জয় ভারতের জয়। এ লোকপ্রিয়তার বিজয়।