গেরুয়া ঝড়ের পূর্বাভাস ছিলই। কিন্তু এক্সিট পোল বলছিল, আসানসোল কেন্দ্র থেকে সম্ভাব্য জয়ী মুনমুন সেনই। কিন্তু সেই বুথ ফেরত সমীক্ষায় জল ঢেলে দিয়ে জয়ী হলেন বাবুল সুপ্রিয়। 

আসানসোল কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থীও বেশি আত্মবিশ্বাসী ছিলেন নিজের জয় নিয়ে। ফলাফলের দিন দুপুর বারোটা পর্যন্ত বলছিলেন, তিনিই জিতবেন। কলকাতা থেকে নিয়ে গিয়েছিলেন বেশ কয়েকটি শাড়িও। ঠিক করেছিলেন সেগুলি পরবেন জিতলে। কিন্তু পাশা ঘুরল উল্টোদিকে। তাই শেষমেশ বেশ মন ভার করেই আসানসোল থেকে কলকাতার পথে রওনা হলেন। যাওয়ার আগে সংবাদমাধ্যমের সামনে বললেন, ফলাফল দেখে দুঃখই হচ্ছে। 

হারের দুঃখ নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনে প্রথমে অভিমান করে বললেন, তোমরা এখন কথা বোলো না আমার সঙ্গে। তার পরে বেশ মন খারাপ নিয়েই বললেন, তিনি আর আসবেন না আসানসোলে। 

ব্যস! প্রতিদ্বন্দ্বী প্রাথীর্র অভিমানী মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিতে একটুও দেরি করলেন না নির্বাচিত সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। মুনমুনকে কটাক্ষ করে তিনি টুইট করলেন, "ধন্যবাদ। কিন্তু আপনি যেভাবে অভিনয় করে, নানা ভাবে বিনোদন দিয়েছেন, তার জন্য আসানসোলের মানুষ আপনাকে মনে রাখবে।" 

তবে মুনমুন এখন পুরোপুরিই চুপ। এই বড় হারের পরে তিনি কি শুধু আসানসোল ছাড়ালেন। নাকি রাজনীতির মঞ্চেও কোনও পরিবর্তন আসবে তা নিয়ে জল্পনা চলছে, যা শুধু সময়ই বলতে পারবে। 

প্রসঙ্গত, আসানসোলে প্রায় ২ লক্ষ ভোটে তৃণমূল প্রার্থী মুনমুন সেনকে হারিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়।