৫ মিনিটে লাইভ আসছি।  এটুকু বলেই বহু মানুষের মন জিতে নিয়েছিলেন মদন মিত্র। ফেসবুকে তিনি ছিলেন তরুণ-তরুণীদের হার্ট থ্রব।  ভাটপাড়ায় তাই তাঁকেই ফিরিয়ে এনে চমকে দিতে চাইছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সেই চাল বুমেরাং হয়ে ফিরে এল।

গুলি বোমার  ভাটপাড়া উপনির্বাচনে পরাজয় হল মদন মিত্রের। ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংহের ছেলে পবন সিংহের কাছে মদন মিত্র হারলেন ২১ হাজার ভোটে।

গত ১৯ মে, রাজ্যে শেষদফার নির্বাচন মধ্যেই ভাটপাড়ায় একটি উপনির্বাচন সম্পন্ন হয়। একদা তৃণমূল বিধায়ক অর্জুন সিংহ ব্যারাকপুর থেকে বিজেপির হয়ে লোকসভা ভোটে লড়তে এলে, ভাটপাড়ায় উপনির্বাচনটি প্রয়োজনীয় হয়ে পড়ে। 

এই উপনির্বাচনকে ঘিরেই শেষ কয়েক দিন রণক্ষেত্র হয়ে উঠেছিল কাঁকিনাড়া। মদন মিত্র অভিযোগ করেছেন তাঁর প্রাণসংশয় রয়েছে। ছেলে পবনকে আসন পাইয়ে দিতে 'দাদাগিরি' করছেন অর্জুন।  দিনের আলোয় গোলাগুলি,  চলন্ত ট্রেনে পাথর ছোঁড়ার মত লাগামহীন হিংসার এই উপনির্বাচন। বাধ্য হয়েই ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন। নিজের গ্রেফতারি রুখতে সুপ্রিম কোর্ট থেকে আগাম জামিন নেন অর্জুন সিংহ। অবশেষে শেষ হাসি হাসলেন পবন, বকলমে তিনিই। পেশির লড়াইয়ে জিতল পদ্ম।