শাহরুখ খানের মতই ইরফান খান সেলফ মেড অভিনেতা। কোনও পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ড নিয়ে, নিজের অভিনয় প্রতিভা দিয়েই বলিউডকে জিতেছিলেন ইরফান। শাহরুখের সঙ্গে  অভিনেতা ইরফানের কিন্তু আরও একটি মিল রয়েছে। বড়পর্দায় আসার আগে দুজনেই ছোটপর্দায় অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে নিজেদের পায়ের জমি শক্তি করেছিলেন। 

তবে জানা যায়, অভিনয় নয়, ইরফানের প্রথম স্বপ্ন ছিল ক্রিকেটার হওয়া। সেখানে তেমন সফল হতে না পেরে ছোটখাট ব্যবসার চেষ্টা করেছিলেন। সেখান থেকে একেবারে অভিনয়ের জগতে। তবে সোনার চামচ মুখে দিয়ে জন্মানি অভিনেতা। তাই চলার পথ মোটেই চিল না সুখকর। 

আরও পড়ুন: বলেছিলেন সুতপার জন্যই বাঁচতে চাই, বাঙালি বউকে একা ফেলে চলে গেলেন কথা খেলাপি ইরফান

নিউ দিল্লির ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামাতে পড়াশোনার জন্য স্কলারশিপ পেয়ে সেখান থেকে ইরফান ড্রামাটিক আর্টসে ডিপ্লোমা করেন। ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামা থেকে পাশ করার পর ইরফান মুম্বাইয়ে চলে আসেন। এখানে  তিনি টেলিভিশন সিরিয়াল দিয়ে নিজের ক্যারিয়ার শুরু করলেন, যদিও প্রথমদিকে অভিনেতাকে  অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। এমনকি টাকা রোগজার করতে  টিউশনি পড়ানো থেকে  মানুষের বাসায় এসি ঠিক করা, সবকিছুই করেছেন অভিনেতা।

আরও পড়ুন: গর্ভধারিনীর মৃত্যুর পরেই ভর্তি হতে হয়েছিল আইসিইউতে, মা-ছেলের ফের দেখা হল জীবনের ওপারে

 ১৯৮৮ সালে ইরফানের ক্যারিয়ারে নতুন দিকে মোড় নেয়। বিখ্যাত পরিচালক মীরা নায়ার তাঁকে  সালাম বোম্বে ছবিতে  একটি অতিথি চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব দেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত ইরফানের চরিত্রটি শেষ পর্যন্ত ফিল্মের এডিটিংয়ের সময় বাদ চলে যায়। যদিও সালাম বোম্বে সিনেমাটি পরে ভারত থেকে অস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিল। ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও জিতেছিল। তবে সিনেমার এডিটিংয়ে তাঁর চরিত্র বাদ পড়লেও ইরফান খান কিন্তু থেমে থাকেননি। তিনি ১৯৯০-এর দশকে একের পর সিরিয়ালে অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে নিজেকে তৈরি করেছিলেন। আসুন দেখে নেওয়া যাক ইরফানের অভিনীত সেই সিরিয়ালগুলির তালিকা। 

বনেগি আপনি বাত
নব্বইয়ের দশকে টেলিভিশনের জগতে নিজের এক আলাদা পরিচয় তৈরি করেছিল এই সিরিয়াল। এই সিরিয়ালটি দেখান হত জি টিভিতে। সেই সময় জি টিভি ছিল দেশের একমাত্র স্যাটেলাইট চ্যানেল। সিরিয়ালে এক মধ্যবয়স্ক বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন ইরফান। সেই সময় তাঁর অভিনয় সকলের প্রশংসা কুড়িয়েছিল। সবচেয়ে মজার বিষয়, এই সিরিয়ালের গল্প লিখতেন সুতপা শিকদার। যিনি পরে ইরফানের স্ত্রী হন। ৪ বছর ধরে টিভিতে প্রদর্শিত হয়েছিল এই সিরিয়াল। 

শ্রীকান্ত
অভিনেতা ইরফান টেলিভিশনে তাঁর ডেবিউ করেছিলেন ভারত এক খোঁজ সিরিয়াল দিয়ে। তবে তাঁর পরিচয় তৈরি করেছিল শ্রীকান্ত। এই সিরিয়ালে এক নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন ইরফান। যা ইরফানের অভিনয় ক্ষমতা দর্শকদের সামনে তুলে ধরেছিল। এই সিরিয়ালে ইরফান ছাড়াও ভারুখ শেখ এবং সুজাতা মেহতার মত শিল্পীরাও অভিনয় করেছিলেন। লকডাউনের জন্য এই সিরিয়ালটি পুনরায় সম্প্রচার করা হচ্ছে। 

চন্দ্রকান্তা
নব্বইয়ের দশকের অন্যতম বিখ্যাত সিরিয়াল চন্দ্রকান্তা। ছোট থেকে বড়, সকলেরই মন জিতে নিয়েছিল এই সিরিয়াল। আর সেই সময়ের এই হিট সিরিয়ালে কাজ করার সুযোগ পেয়েছিলেন ইরফান খানও। সিরিয়ালে ডবল রোল করতে দেখা যায় ইরফানকে। তাঁর চরিত্র দুটির নাম ছিল বদ্রীনাথ ও সোমনাথ। এই সিরিয়ালে কমেডি করতে দেখা গিয়েছিল ইরফানকে। আর চন্দ্রকান্তা সিরিয়ালই প্রকৃত অর্থে ইরফানের জীবনে পরিবর্তন এনেছিল, কারণ এই সিরিয়ালই তাঁকে বলিউডে পা রাখার সুযোগ করে দিয়েছিল। 

জয় হনুমান
দূরদর্শনের আরও এক সুপারহিট সিরিয়াল জয় হনুমানেও অভিনয় করেছিলেন ইরফান। জয় হনুমানে তাঁকে মহর্ষি বাল্মিকীর চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল। এখানেও ইরফানের অভিনয়ের স্টাইলকে সবাই পছন্দ করেছিলেন। 

চাণক্য
চাণক্য সিরিয়ালটিও সেই সময়ে খুব জনপ্রিয় হয়েছিল। দীর্ঘ সময় ধরে চলেছিল এই সিরিয়াল। এই সিরিয়ালের সঙ্গে যুক্ত সকলের অভিনয়ই প্রশংসা কুড়িয়েছিল। ইরফান খানকেও  চাণক্য সিরিয়ালে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল। তিনি সেনাপতি ভদ্রশীলের চরিত্রে অভিনয় করেন, এবং তাঁর রাজকীয় রূপ সকলকে মুগ্ধ করে।