প্রফেসর, টোকিও, রাকেল, আলিসিয়া। এই নামগুলোর সঙ্গে সিরিজ ভিউভাররা অত্যন্ত পরিচিত। জনপ্রিয় স্প্যানিশ সিরিজ মানি হাইস্টের চরিত্রগুলির নামই উল্লেখ করা হয়েছে এখানে। নেটদুনিয়ার আনাচে কানাচে এখন এদের নামই ঘুরে ফিরে বেরায়। মানি হাইস্ট সিরিজটি বিঞ্জওয়াচিংয়ের জন্য সম্পূর্ণরূপে দায়ী। প্রফেসর, নাইরবি, বার্লিন এ সকল চরিত্রগুলি নিয়ে রীতিমত একাধিক দর্শকের কাছে অতি পছন্দের হয়ে উঠেছে। চারটি সিজন আপাতত রয়েছে নেটফ্লিক্সে। চার নম্বর সিজনটি মাসখানেক আগেই মুক্তি পেয়েছে। 

নাইরবির চরিত্রটির মৃত্যুর পর পালের্মো এবং গান্দিয়ার উপর রীতিমত ফুসছে। নাইরবি অর্থাৎ অ্যালবা ফ্লোরসের স্পষ্ট তেলেগু ভিডিও রীতিমত ভাইরাল। স্প্যানিশ বায়োগ্রাফিকাল ছবি 'ভিসেন্টে ফেরার' ছবিতে ভারতীয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। সেই ছবির ক্লিপই ঘুরে ফিরে বেড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সিরিজটি নিয়ে সকলের মধ্যে উত্তেজনা তুঙ্গে। আলিসিয়া সিয়েরা, সিরিজের মোস্ট হেটেড ভিলেনের মধ্যে তিনি সেরা। যদিও সিয়েরার আসল পরিচয় এবং সিরিজের অন্যান্য বিষয় নিয়ে নানা ফ্যান থিওরি এসে গিয়েছে প্রকাশ্যে।

বিঞ্জওয়াচিংয়ের উত্তেজনা, প্রত্যেক চরিত্রের খুঁটিনাটি বের করা সঙ্গে চিত্রনাট্যের মধ্যে লুকিয়ে থাকা নানা হিন্ট, এসব খোঁজার দায়িত্ব হল সিরিজ ফ্যানেদের। ইতিমধ্যে মানি হাইস্টের সিজন ফাইভ নিয়ে বিভিন্ন ফ্যান থিওরি প্রকাশ্যে এসে গিয়েছে। স্পয়ালার সমেতই লকডাউনের মধ্যে সামনে এলে নানা থিওরি। লকডাউন বলেই সিজন ফাইভ আসতে এখনও ঢের দেরি। আগামী কোন সময় নতুন সিজন আসবে সে বিষয় কিছুই নিশ্চিত জানাতে পারেনি পরিচালক। ফ্যান থিওরির মতে, সিজন ফাইভে মারা যেতে পারে হেলসিঙ্কি। হেলসিঙ্কি হল প্রফেসরের রবারি গ্যাংয়ের গুরুত্বপূর্ণ একজন। তাঁকে নাকি এগজিকিউট করা হতে পারে আগামী সিজনে।