সুপার ফ্লপ ছবির শোকেই চিরতরে দেশ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলেন অক্ষয় কুমার, অভিনেতার স্বীকারোক্তিতে চোখে জল ভক্তদের

| Nov 13 2022, 01:21 PM IST

akshay kumar in cameo role in ayushmann khurrana film an action hero as per reports KPJ
সুপার ফ্লপ ছবির শোকেই চিরতরে দেশ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলেন অক্ষয় কুমার, অভিনেতার স্বীকারোক্তিতে চোখে জল ভক্তদের
Share this Article
  • FB
  • TW
  • Linkdin
  • Email

সংক্ষিপ্ত

এবছরে সুপারহিট তো দূরেই থাক একটিও হিট ছবি দিতে পারেননি অক্ষয় কুমার। পর পর ১৪-১৫ টি সুপার ফ্লপ মুভিতে কাজ করে হতাশ অক্ষয় সিদ্ধান্ত নিলেন দেশছাড়ার। কিন্তু কোন দেশে পাড়ি দেবেন তিনি? জানতে হলে চোখ রাখুন খবরে।

বলিউডের খিলাড়ি অক্ষয় কুমারের কানাডিয়ান পাসপোর্টের কথা ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন প্রায়শই এ নিয়ে নানারকম সমালোচনার মুখে পড়ছেন তিনি। এমনকি অক্ষয় কুমার নামের পরিবর্তে ক্রিটিকরা "কানাডা কুমার" হিসাবে উল্লেখ করেছে অভিনেতাকে। কেন কানাডিয়ান পাসপোর্ট করালেন অভিনেতা? তবে কী ভারত ছাড়ার পরিকল্পনা রয়েছে তার? এবিষয়ে মতামত জানাতে অক্ষয় এদিন জানান, তিনি ২০১৯ সালে তার ভারতের পাসপোর্ট তৈরির জন্য আবেদন করেন কিন্তু ২০২০ সালে করোনা আবহে তা আর হয়নি এবং ২.৫ বছর পর এখনও তিনি পাসপোর্ট পাননি‌ পাশাপাশি তিনি আরও জানিয়েছেন কানাডিয়ান পাসপোর্ট থাকা মানে এই নয় যে ভারতের নাগরিক নন।

হিন্দুস্তান টাইমস লিডারশিপ সামিটের সাক্ষাৎকারে অভিনেতাকে এবিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান,"কানাডিয়ান পাসপোর্ট থাকা মানে এই নয় যে আমি একজন ভারতীয় থেকে কম।" আমি ভারতীয় হিসেবেই নিজেকে চিহ্নিত করি। আমি গত নয় বছর ধরে এখানে রয়েছি, তাই যখন থেকে আমি আমার পাসপোর্ট পেয়েছি তখন থেকে কী কী ঘটেছে তার সুনির্দিষ্ট বিষয় আমি জানাতে চাই না। আমার সিনেমাগুলো এবছর মোটেও ভালো পারফর্ম করেনি। হ্যাঁ, আমি ২০১৯ সালে বলেছিলাম যে আমি ভারতের পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেছি কিন্তু মহামারীর কারণে সবকিছু ২-২.৫ বছরের জন্য আটকে রাখতে হয়েছিল। এছাড়া অক্ষয় কুমার আরও জানান যে তিনি খুব শীঘ্রই ভারতের পাসপোর্ট পাবেন।

Subscribe to get breaking news alerts

লালনটপের সঙ্গে কথোপকথনে অক্ষয় কুমার জানান তিনি কানাডার নাগরিকত্ব ধারন করলেও তিনি ভারতে তার যাবতীয় ট্যাক্স সময় মতো পরিশোধ করেন। তিনি আরও বলেন যে তিনি একজন ভারতীয় এবং সবসময়ই তাই থাকবেন। উপরন্তু, তিনি কথোপকথনে প্রকাশ করেছিলেন যে তার প্রত্যেক সিনেমা ব্যর্থ হওয়ায় তিনি বিদেশে যাওয়ার কথা ভেবেছিলেন এবং বলেছিলেন “কয়েক বছর আগেও আমার ছবি সফল হয়নি।

উল্লেখিত সাক্ষাৎকারে অক্ষয় কুমার জানান " আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম যে আমাকে অবশ্যই বিদেশে স্থানান্তরিত করা উচিত এবং সেখানে কাজ করা উচিত কারণ আমার প্রায় ১৪-১৫টি এমন সিনেমা তৈরি হয়েছে যা বক্স অফিসে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছিল।অনেক ব্যক্তি কর্মসংস্থানের জন্য কানাডায় স্থানান্তরিত হয়েছে, তবুও তারা এখনও ভারতীয়। আমি এও যুক্তি দিয়েছিলাম যে এই পরিস্থিতিতে ভাগ্য আমার পক্ষে না থাকলে আমার এই ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। আমি সেখানে গিয়েছিলাম এবং আবেদন করলে আমায় নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছিল,"।

ব্যাক-টু-ব্যাক চমকপ্রদ পারফরম্যান্সের না দেওয়ার ফলে অভিনেতার কেরিয়ারে ঘনিয়ে এসেছে মন্দা। তার সর্বশেষ চলচ্চিত্র রাম সেতু, সমালোচকদের কাছে প্রশংসনীয় না হলে বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছে। এছাড়াও কাজের ফ্রন্টে তিনি শীঘ্রই বিখ্যাত তামিল ফিল্ম সোরারাই পোত্রু এবং মালয়ালম স্ম্যাশ ড্রাইভিং লাইসেন্সের অফিসিয়াল রিমেকে কাজ করবেন বলে জানা গিয়েছে, বর্তমানে যার নাম পরিবর্তন করে নতুন নাম হয়েছে সেলফি। উপরন্তু, অক্ষয় কুমার আয়ুষ্মান খুরানা অভিনীত আসন্ন অ্যাকশন মুভি অ্যান অ্যাকশন হিরো ছবিতে ক্যামিও করবেন বলে সূত্রের খবর।

আরও পড়ুন

আলিয়ার বিরতিতেই পরিবর্তন হল রকি অর রানি কি প্রেম কাহিনির মুক্তির দিন,করণ জোহরের পোস্টে হতাশ দর্শকমহল

কোকেন -হেরোইন কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছে তার নাম, আরিয়ান খানের জীবনে বড় শিক্ষা 'মাদক মামলা'

জলে পা ডুবিয়ে শরীর এলিয়ে রিল্যাক্স মুডে সোহিনী, প্রকৃতির কোলে কার সঙ্গে ছুটি কাটাচ্ছেন নায়িকা