বাড়ির পুরনো জিনিসের বদলে নতুন জিনিস পেতে কার না ভালো লাগে! আর এই স্বপ্নকে পূর্ণ করতে আসতে চলেছে কালার্স বাংলায় 'অদল-বদল'। শো-এর সঞ্চালক কাঞ্চন মল্লিক। ২২ জুলাই থেকে সোম থেকে শনিবার বিকেল ৫.৩০টায় অনুষ্ঠানটি কালার্স বাংলা-তে দেখা যাবে। এছাড়া 'ভুট' অ্যাপ-এও দেখা যাবে যে কোনও সময়।  

এই গেম-শো-এর বিশেষত্ব হল যে এতে গতে-বাধা কোনও নির্দিষ্ট অতিথি থাকছে না। একেক দিন একেকটি লোকালয়ে হানা দেবে টিম অদল-বদল। অবশ্যই এই দলের মাথা কাঞ্চন মল্লিক। রাস্তা চলতি মানুষকে পাকড়াও করে চলবে গেম-শো-এর খেলা। চ্যানেল কর্তৃপক্ষের মতে এক্কেবারে রিয়াল ওয়ার্ল্ডে-র লাইভ গেম-শো। বহু বছটর আগে এমন একটি গেম-শো করেছিলেন কাঞ্চন মল্লিক। 'জনতা এক্সপ্রেস' নামে সেই গেম-শো-এরও বিশেষত্ব ছিল সাধারণ মানুষ। তবে, সেখানে পথ চলতি মানুষকে ধরে গেম খেলার চল ছিল না। কিন্তু, অ্যাঙ্কর কাঞ্চন-এর কাণ্ড-কারখানা দেখতে জনতা এক্সপ্রেস-এ ভিড় জমে যেত দর্শকরদের। 

'অদল-বদল' গেম শো-এর টাইটেল ট্র্যাকটিতে গলা দিয়েছে  কাঞ্চন মল্লিক নিজে। ফলে সঞ্চালক হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কাঞ্চন এই গেম-শো-এর প্লেব্যাক সিঙ্গারও বটে।  কাঞ্চন এক-এক দিন পৌঁছে যাবেন আলাদা-আলাদা পরিবারে। শো-তে বাজি লাগাতে হবে বাড়ির যে কোনও একটি জিনিস। তারপর তিনটি প্রশ্নের মধ্যে যে কোনও দুটি প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিলেই মিলবে নতুন জিনিস। আর সঠিক উত্তর না দিতে পারলে বাজি লাগানো বাড়ির পুরনো জিনিস  দিয়ে দিতে হবে।
 
 কালার্স বাংলার বিসনেস হেড রাহুল চক্রবর্তী জানিয়েছেন- 'এরকম অনুষ্ঠান বাংলায় আগে কখনও হয়নি। এটা একটা মজার গেম শো। সঠিক উত্তর দিলে নতুন জিনিস আর না পারলে নিজের জিনিস দিয়ে দেওয়া'। 
 কাঞ্চন মল্লিকও উচ্ছ্বসিত ভঙ্গিতে জানান, 'জনতা এক্সপ্রেস দিয়ে আমি আমার যাত্রা শুরু করি,তখন ও সাধারণ মানুষের সাথে আমার সম্পর্ক ছিল আর এই শো-এর মধ্যেও সেই আম-জনতা দের খুঁজে পাওয়া'। তিনি 
আরও জানান যে ' এই অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে শুধু জিনিসসের অদল-বদল নয় সাধারণ মানুষদের সঙ্গে ভাবের ও অদল-বদল হয়েছে তার'। টিকটকে ইতিমধ্যে দর্শকদের মধ্যে সাড়া জাগিয়েছে #অদল-বদল র‍্যাপ চ্যালেঞ্চ।