কয়েকটি কাল্পনিক চরিত্রেই আসটে পিশটে বাঁধা শৈশব। তবে সব চরিত্র কাল্পনিক নয়। মডেল কাল্পনিক হলেও তাদের নেপথ্যে যাঁরা কণ্ঠ দিয়ে থাকেন তাঁদেরও অবদান ততখানিই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তাঁদের কণ্ঠস্বরেই ভাষা খুঁজে পায় ছোট ছোট কার্টুন চরিত্রেরা। তেমনই এক জনপ্রিয় কার্টুন চরিত্র ছিল মিকি মাউস ও মিনি মাউস। তবে মিনি মাউসের গলায় আর থাকছে না পরিচিত কণ্ঠ। শুক্রবার প্রয়াত হলেন রুসি টেলর। তিনিই মিনি মাউসের গলায় কণ্ঠ দান করতেন। ক্যালিফোর্নিয়ার গ্লেনডেলে প্রয়াত হলেন তিনি। 

খবর প্রকাশ্যে আসার পর শোকের ছায়া পরে ডিজনি ল্যান্ডে। ছোট থেকেই তিনি ডিজনির সঙ্গে যুক্ত হওয়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন রুসি। ডিজনিতে কাজ করার সুযোগও পান তিনি। এক টানা ত্রিশ বছর মিনি মাউসের গলায় কথা বলেছেন তিনি। যেখানেই মিনির ডাক, সেখানেই সঙ্গে থেকেছেন রুসি। তবে এবার থেকে আর একসঙ্গে দেখে যাবে না এই জুটিকে। 

 

 

ডিজনির তরফ থেকে শনিবার শোক প্রকাশ করে একটি পোস্টও করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় খবর ছড়িয়ে পড়া মাত্রই বিভিন্ন মহলে নেমে আসে শোকের ছায়া। যাদের শৈশবরে সঙ্গে জড়িয়ে মিনি মানুষ তাদের কাছে এখন সেই কণ্ঠ কেবলই স্মৃতি। পরিচিত কণ্ঠের বদলে এখন মিনির গলায় কে তা নিয়েও ভক্ত মহলে আলোচনা তুঙ্গে। ত্রিশ বছরের স্মৃতি কাটিয়ে ওঠা কী এতটাই সহজ! বার্ধক্য জণিত কারণে অসুস্থ ছিলেন রুসি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর।