Asianet News BanglaAsianet News Bangla

রামসে হান্ট সিনড্রোমে আক্রান্ত জাস্টিন বিবারের মুখের ডানদিক পক্ষাঘাতগ্রস্ত

মুখের ডানপাশ পক্ষাঘাতে আক্রান্ত জনপ্রিয় গায়ক জাস্টিন বিবারের। ইনস্টাগ্রামে ভিডিও বার্তায় তিনি জানালেন রামসে সিনড্রোমে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি।

Justin Bieber is suffering from facial paralysis due to Ramsay hunt syndrome anbsd
Author
Kolkata, First Published Jun 11, 2022, 2:14 PM IST

জনপ্রিয় গায়ক জাস্টিন বিবারের অগণিত ভক্তদের জন্য দুঃখের খবর তাদের প্রিয় গায়ক মুখের পক্ষাঘাতে আক্রান্ত হয়েছেন। জাস্টিন এই ভয়ঙ্কর অসুখের জন্য তার বেশ কিছু কনসার্ট বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন। সেকথা জানাতেই ইনস্টাগ্রামে ভিডিও বার্তা দিয়েছেন তিনি। বিরল রামসে সিনড্রোমে আক্রান্ত হওয়ার ফলেই তার মুখের ডান পাশ পক্ষাগ্রস্ত হয়ে গিয়েছে।
কি এই রামসে সিনড্রোম? 
রামসে হান্ট সিন্ড্রোম হলে কানের চারপাশে, বা মুখে একটি বেদনাদায়ক ফুসকুড়ি হয়। এটি ঘটে যখন ভেরিসেলা-জোস্টার ভাইরাস মাথার স্নায়ুকে সংক্রামিত করে। এই সিনড্রোমে মুখের পক্ষাঘাতও হতে পারে।রামসে হান্ট সিনড্রোম ভেরিসেলা জোস্টার ভাইরাস (ভিজেডভি) দ্বারা সৃষ্ট হয়, একই ভাইরাস যা শিশুদের চিকেনপক্স এবং প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে শিংলস (হার্পিস জোস্টার) ঘটায়। রামসে হান্ট সিন্ড্রোমের ক্ষেত্রে, পূর্বে নিষ্ক্রিয় (সুপ্ত) ভেরিসেলা-জোস্টার ভাইরাস পুনরায় সক্রিয় হয় এবং মুখের স্নায়ুকে প্রভাবিত করতে ছড়িয়ে পড়ে।


ইনস্টাগ্রাম ভিডিওতে জাস্টিন বলেন, 'আমি একটি ভাইরাসের কারণে এই রোগে আক্রান্ত হয়েছি। যা আমার কাজ এবং আমার মুখের স্নায়ুতে আক্রমণ করছে। এ কারণে আমার মুখের একপাশে সম্পূর্ণ পক্ষাঘাতগ্রস্ত (Face Paralysis)। আপনারা দেখতে পাচ্ছেন যে, আমার একটি চোখের পলক পড়ছে না। আমি এদিক থেকে হাসতেও পারছি না। এমনকি আর এদিক থেকে আমার নাক নড়ছে না। বিষয়টি খুবই গুরুতর, আপনারা বুঝতেই পাচ্ছেন। এটা আমার সঙ্গে না ঘটলেই ভাল হত। কিন্তু শরীর আমাকে বলেছে যে, এবার আমার একটু শান্ত হওয়া উচিত। আমি আশা করি আপনারা বুঝতে পারবেন এবং আমি এই সময়টা সম্পূর্ণ বিশ্রাম নিতে চাই। যাতে, আমি ১০০ শতাংশ দিয়ে আবার কাজে ফিরতে পারি এবং আমি যা করতে জন্মগ্রহণ করেছি সেটা করতে পারি।' জাস্টিন কিছুদিন শরীরকে বিশ্রাম দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। মুখ ঠিক হলে গেলে তারপরই কনসার্ট করা শুরু করবেন তিনি। মুখের ডানদিকে তার চোখের পলক পড়ছেনা। ডানদিকের ঠোঁট দিয়ে হাসতেও পারছেন না তিনি। এই অবস্থায় কারও পক্ষে গান করা সম্ভব নয়। তবে ঠিক কতদিনে তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন, তা  অনিশ্চিত। তার এই খবরে তার ভক্তরাও উদ্বিগ্ন। মুখের এক্সারসাইজ করছেন বলে জানিয়েছেন জাস্টিন বিবার। আপাতত সময়ের উপর ভরসা রাখা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।

আরও পড়ুনঃ 

সম্পর্কের জন্য নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন, এই ভাবে সামলান অনুভূতি

কটকে দ্বিতীয় টি২০ ম্য়াচে ঘুড়ে দাঁড়াবে টিম ইন্ডিয়া, না ফের বাজিমাত করবে প্রোটিয়ারা, কী বলছে প্রেডিকশন

এই ভুলগুলো একজন মানুষকে গরীব করে দিতে পারে, যা অজান্তেই করে থাকে অনেকে

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios