অপেশাদার আচরণের জন্য নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির সঙ্গে এক পর্দায় কাজ করা হল না মৌনী রায়ের। মে মাসেই বোলে চুড়িয়া ছবি থেকে বাদ পড়েছেন তিনি। এবার সেই জায়গা নিয়ে নিলেন তমান্না ভাটিয়া। নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির বিপরীতে তাঁকেই অভিনয় করতে দেখা যাবে। 

ছবির পরিচালক শামাস সিদ্দিকি এই নিয়ে তমান্নাকে টুইট করে অভিননন্দনও জানান। পরিচালক এমনকী এও বলেন, এতদিনে আমার ছবির জন্য যোগ্য অভিনেত্রী পাওয়া গেল। নওয়াজও এদিন তমান্নাকে উইশ করেন। 

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, অপেশাদার আচরণের জন্য়ই মৌনীকে এই ছবি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। ছবির প্রযোজক জানিয়েছেন, মৌনী কোনও দিনই সময়ে আসতেন না। ছবির চুক্তিতে সই করার পর থেকেই তিনি অপেশাদার আচরণ করছিলেন।

প্রযোজক রাজেশ ভাটিয়ার কথায়, "ছবির জন্য আমরা অনেক টাকা খরচ করি। শখে ছবি করি না। তাই যারা ছবিতে কাজ করবেন তাঁদেরও তো পেশাদার হতে হবে। প্রতিশ্রুতি রাখতে হবে। কিন্তু ছবির চুক্তিতে সই করার পরের দিন থেকেই মৌনী খুবই অপেশাদার।"

শুধু তাই নয় সংবাদমাধ্য়মের কাছে প্রযোজক জানিয়েছিলেন, পারিশ্রমিক দেওয়ার পরেও তিনি ঠিক সময়ে আসেননি। তিনটের জায়গায় সাড়ে পাঁচটায় এসেছেন। তিনি জানিয়েছেন মৌনীর এই আচরণে ছবির পরিচালক ও অভিনেতারাও বিরক্ত হয়েছেন। বেশি কিছু ইমেল, টেক্সটও প্রমাণ করবে মৌনী কতটা অপেশাদার, বলছেন প্রযোজক। 

যদিও মৌনী এই অভিযোগ স্বীকার করেননি। তাঁর মুখপাত্র বলেছেন, মৌনী যথেষ্ট পেশাদার। আর সেই সুবাদে অনেক ছবিতক কাজ করেছেন তিনি। তাঁকে সকলে পছন্দও  করেছেন। কিন্তু মৌনী যদিও এই নিয়ে বেশি কথা বাড়াতে চাননি।